corona virus btn
corona virus btn
Loading

থাকবে নরেন্দ্র মোদির মূর্তি, লকডাউন শেষ হলেই মন্দির তৈরি করবেন বিজেপি বিধায়ক

থাকবে নরেন্দ্র মোদির মূর্তি, লকডাউন শেষ হলেই মন্দির তৈরি করবেন বিজেপি বিধায়ক
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷

গণেশ যোশীর আরও দাবি, নিজের বাড়ির ঠাকুর ঘরে দেবতাদের ছবির সঙ্গেই নরেন্দ্র মোদির ছবিও রেখে দিয়েছেন তিনি৷

  • Share this:

#মুসৌরি: নরেন্দ্র মোদির আরতি করে শিরোনামে এসেছিলেন৷ এবার উত্তরাখণ্ডের মুসৌরির বিজেপি বিধায়ক গণেশ যোশী জানালেন, খুব শিগগরিই প্রধানমন্ত্রীর নামে মন্দির তৈরি করতে চলেছেন তিনি৷ সেখানে নরেন্দ্র মোদির মূর্তিও বসাবেন বলে ঠিক করে ফেলেছেন বিজেপি বিধায়ক৷

কয়েকদিন আগেই এক মোদি ভক্তের লেখা গান গেয়ে প্রধানমন্ত্রীর আরতি করেছিলেন এই গণেশ যোশী৷ বিজেপি বিধায়কের এই কীর্তির কড়া সমালোচনা করে বিরোধীরা৷ তাতেও অবশ্য এতটুকু দমে যাননি এই বিজেপি বিধায়ক৷ এবার একেবারে নরেন্দ্র মোদির নামে মন্দির গড়ার পরিকল্পনা করেছেন তিনি৷

বিজেপি বিধায়ক বলেছেন, 'প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্য আমার মনে অপরিসীম শ্রদ্ধা রয়েছে৷ উনি শুধু আমাদের দেশেরই নন, একজন বিশ্বনেতাও বটে৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও তাঁকে নিয়ে মুগ্ধ৷ আমি তাঁর আরতি করে কোনও ভুল করিনি এবং লকডাউন শেষ হলেই তাঁর মূর্তি সহ একটি মন্দির তৈরি করব৷'

গণেশ যোশীর আরও দাবি, নিজের বাড়ির ঠাকুর ঘরে দেবতাদের ছবির সঙ্গেই নরেন্দ্র মোদির ছবিও রেখে দিয়েছেন তিনি৷ বিজেপি বিধায়কের যুক্তি, 'প্রধানমন্ত্রী দিনে ১৮ ঘণ্টা কাজ করেন৷ এর থেকেই প্রমাণিত যে তাঁর মধ্যে কোনও দৈবশক্তি রয়েছে৷ মন্দির তৈরি করে আমি তাঁর প্রতি শুধু শ্রদ্ধা জানাতে চাই৷'

তিনি আরও জানিয়েছেন, বাড়িতে দেবতাদের পুজো করার পর আলাদা করে প্রধানমন্ত্রীর ছবিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি৷ গণেশ যোশীর দাবি, নরেন্দ্র মোদি যখন ১৯৯৯ সালে বিজেপি-র একজন সাধারণ অফিস কর্মী ছিলেন, তখন থেকেই নাকি তাঁর ভক্ত ছিলেন তিনি৷ নিজের অফিসেও নরেন্দ্র মোদির ছবি রাখতেন৷

রাজ্যের বিরোধী দল কংগ্রেস যতই তাঁকে নরেন্দ্র মোদির অন্ধ ভক্ত বলে কটাক্ষ করুক না কেন, তাতে আমল দিতেই নারাজ গণেশ যোশী৷ এমন কী তাঁর নিজের দল বিজেপিও প্রধানমন্ত্রীর আরতি বিতর্কের দায় নিতে রাজি হয়নি৷ যদিও সেই অনুষ্ঠানে রাজ্যের উচ্চশিক্ষা মন্ত্রী উপস্থিত ছিলেন৷ তাতে বিরোধীদের আক্রমণের মাত্রা আরও তীব্র হয়েছে৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: May 24, 2020, 8:27 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर