Home /News /national /
দিগ্বিজয় সিংকে মহিষাসুর বলে বিতর্কে বিজেপি নেতা

দিগ্বিজয় সিংকে মহিষাসুর বলে বিতর্কে বিজেপি নেতা

কংগ্রেস প্রার্থীকে মহিষাসুর ও সাধ্বীকে মহিষাসুরমর্দিনী বলে বর্ণনা করা হল

  • Share this:

    #ভোপাল: ফের বিতর্কিত মন্তব্য সাধ্বী প্রজ্ঞার ৷ ভোপালের বিজেপি প্রার্থী মালেগাঁও বিস্ফোরণের অন্যতম অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞা ঠাকুরের প্রচার শুরু হতে না হতেই একের পর এক বেফাঁস মন্তব্য ৷ এবার নিজের লোকসভা কেন্দ্রের প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের দিগ্বিজয় সিংকে মহিষাসুর বলে বর্ণনা করা হলে তা সমর্থন করেন সাধ্বী ৷

    শুক্রবার সকাল থেকেই জাতীয় রাজনীতির শিরোনামে সাধ্বী প্রাচী ৷ হেমন্ত করকরের পর এবার সাধ্বী প্রাচীর নিশানায় কংগ্রেস প্রার্থী দিগ্বিজয় সিং ৷ কংগ্রেস প্রার্থীকে মহিষাসুর ও সাধ্বীকে মহিষাসুরমর্দিনী বলে বর্ণনা করা হল এদিন ৷

    পুরান অনুযায়ী, রাক্ষসকুলের রাজা মহিষাসুরকে বধের জন্যেই ব্রহ্মা, বিষ্ণু ও শিব আহবান করেন দেবী দুর্গাকে ৷ অসুরকে বধ করার জন্যেই তাঁর নাম হয় মহিষাসুরমর্দিনী ৷ সাধ্বী প্রজ্ঞাকে সেই মহিষাসুরমর্দিনীর জায়গাতেই বসালেন ভোপালের বর্তমান বিজেপি সাংসদ অলোক সঞ্জর ৷ এদিন ভোপালের ভারিয়ায় বিজেপি কর্মীসভায় সাধ্বী প্রজ্ঞা অলোক সঞ্জরের প্রশংসায় বলেন, ‘ভারতীয় রাজনীতিতে এত বড় মন কারোর নেই যে নিজের জেতা আসন সে অন্য কারোর জন্য ছেড়ে দেবে ৷ ’

    জবাবে বিদায়ী সাংসদ সাধ্বীর উদ্দেশে বলেন, ‘দিদি, এখন রক্ষার জন্যই আপনাকেই দরকার ৷ আপনি জিতে আসুন ৷ আমরা একসঙ্গে মহিষাসুরকে বধ করি ৷ যখন মহিষাসুরের মতো এই ব্যক্তিও সম্পূর্ণ দুর্নীতিগ্রস্থ ৷ মহিষাসুরের পাপের ঘড়া ভরে যাওয়ার পর মহিষাসুরমর্দিনী নিজে তাঁকে বধ করতে এসেছিলেন ৷ এর দুর্নীতির হাত থেকে রক্ষা করতে গেরুয়া বেশে এসেছেন আমাদের মহিষাসুরমর্দিনী ৷’ কংগ্রেসের কথার জবাব কংগ্রেসের ভাষাতেই দিতে হবে বলে মন্তব্য করেন অলোক সঞ্জর ৷

    এখানেই শেষ নয়, কংগ্রেসের বলা গেরুয়া আতঙ্কবাদ-এর কথা তুলে অলোক বলেন, গেরুয়াকে আতঙ্কবাদ বলছে যারা তারা নিশ্চিতভাবে ভ্রষ্ট ও পাপী ৷ এরা ভারতীয় সংস্কৃতি বিরোধী ৷ সাধ্বীকে মহিষাসুরমর্দিনী ও দিগ্বিজয়কে মহিষাসুর মন্তব্যে ফের উঠেছে বিতর্কের ঝড় ৷

    অন্যদিকে, সাধ্বীর বিতর্কিত মন্তব্যে অস্বস্তিতে খোদ গেরুয়া শিবির ৷ যিনি দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছিলেন, অশোক চক্র পাওয়া সেই মুম্বই এটিএসের প্রধানকে দেশদ্রোহী বলে চিহ্নিত করেন সাধ্বী ৷ মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত সাধ্বীর দাবি, তাঁর অভিশাপেই নাকি মৃত্যু হয় হেমন্ত করকরের। এই মন্তব্যের জেরেই ওঠে সমালোচনার ঝড়। সাধ্বীর বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে বিড়ম্বনায় গেরুয়া শিবির ৷ সমালোচনা থামাতে তড়িঘড়ি বিজেপি বলে, ‘সাধ্বীর মন্তব্য দলের নয় ৷ এটি একেবারেই স্বাধ্বীর ব্যক্তিগত মন্তব্য ৷ উনি দেশের জন্য লড়াই করে প্রাণ হারিয়েেছেন ৷ আমরা সকলেই তাঁকে শহিদ হিসেবেই মানি ৷’

    First published:

    Tags: BJP Leader, Dighvijay Singh, Elections 2019, Lok Sabha elections 2019, Mahisasur, Mahisasurmardini, Sadhi Pragya

    পরবর্তী খবর