Home /News /national /
বিহারে খৈনির উপর জারি হতে পারে নিষেধাজ্ঞা, যার কোপ পড়তে পারে আসন্ন নির্বাচনে

বিহারে খৈনির উপর জারি হতে পারে নিষেধাজ্ঞা, যার কোপ পড়তে পারে আসন্ন নির্বাচনে

File photo

File photo

অ্যালকোহলের পর এবার খৈনিতেও নিষেধাজ্ঞা জারি ৷ দু’বছর আগেই অ্যালকোহল বিক্রির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল সরকার ৷ স্বাস্থ্য সুরক্ষার খাতিরে এবার খৈনি বিক্রির উপরও কোপ বিহার সরকারের ৷

  • Last Updated :
  • Share this:

    #পটনা: অ্যালকোহলের পর এবার খৈনিতেও নিষেধাজ্ঞা জারি ৷ দু’বছর আগেই অ্যালকোহল বিক্রির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল সরকার ৷ স্বাস্থ্য সুরক্ষার খাতিরে এবার খৈনি বিক্রির উপরও কোপ বিহার সরকারের ৷ আসন্ন নির্বাচনের আগে বিহার সরকারের এহেন সিদ্ধান্ত সরকারের বিরুদ্ধে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে সাধারণ মানুষের মধ্যে ৷ এমনটাই সম্ভাবনা রাজনৈতিক মহলের ৷

    আরও পড়ুন: OLX-এ সেলে বিক্রি হচ্ছে কেরল কংগ্রেসের অফিস !

    ২০১৬ থেকে ২০১৭ সালে দ্যা গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোবাকো-র সমীক্ষা বলছে, রাজ্যের ২৫.৯ শতাংশ মানুষই এই চুইং টোবাকো খান ৷ যাদের মধ্যে ২০.৪ শতাংশ মানুষই খৈনির মত মাদকে আসক্ত হন ৷ খৈনির মত মাদকের জেরে ভবিষ্যতে ক্যান্সারের মত রোগও হতে পারে ৷ যার জেরেই রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর কেন্দ্রের কাছে লিখিত দরখাস্ত পাঠান ৷ সেই চিঠিতে খৈনিকে ফুড সেফটি অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ডস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া(এফএসএসএআই)-র অধীনে নিয়ে আসার কথা উল্লেখ করা হয় ৷ অপরদিকে, সীডস(সোসিও-ইকনমিক অ্যান্ড এডুকেশনাল ডেভলপমেন্ট সোশাইটি)-ও এই একই আর্জি জানিয়ে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের কাছে চিঠি লেখে ৷

    প্রসঙ্গত, বিহারের বেশ কিছু রাজনৈতিক নেতাও খৈনির মত তামাকজাতীয় দ্রব্যে আসক্তি রয়েছে ৷ এমনকী, আরজেডি নেতা লালু প্রসাদ যাদবেরও এই তামাকজাত দ্রব্যে আসক্তি রয়েছে ৷ গত বার লালু যখন জেলে ছিলেন ৷ সেই সময়ও বাড়ি থেকে তাঁর খাবার আসত এবং পটনা থেকে এই সমস্ত তামাকজাত দ্রব্য আসত ৷

    তবে, এই খৈনির মত তামাকজাত দ্রব্যের চাষ বন্ধ হয়ে গেলে কৃষকদের আর্থিক আয়ের উপর কোপ পড়তে পারে ৷ যার জেরে কৃষকদের একটা বড় অংশের ভোট আরজেডি-র বদলে যেতে পারে জেডি(ইউ) এবং এনডিএ জোটের দিকে ৷ এমনটাই মত রাজনৈতিক মহলের ৷

    দেশের ষষ্ঠ বৃহত্তম রাজ্য বিহার তামাকজাত দ্রব্য তৈরির জন্য ৷ সমস্তিপুর ছাড়াও বৈশালি, মজফরপুর, দ্বারভাঙা এবং সীতামারহিতে খৈনির মত তামাকজাত দ্রব্যের চাষ হয় ৷ সেখান থেকেই অসম, পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ, ঝাড়খণ্ড এবং মধ্যপ্রদেশে বিক্রি করা হয় সেই সমস্ত তামাকজাত দ্রব্য ৷

    First published:

    Tags: Bihar, Chewing tobacco, JDU, Khaini, RJD