দেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

রেলের টিকিট ব্যবস্থায় আসছে আমুল পরিবর্তন  

রেলের টিকিট ব্যবস্থায় আসছে আমুল পরিবর্তন  

খুব শীঘ্রই এই কিউ আর কোড যুক্ত টিকিট দেওয়া শুরু হয়ে যাবে ভারতীয় রেলের সমস্ত জোনেই।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা আবহে আমূল বদলে যাচ্ছে রেলের টিকিটও। বিশেষ করে দূরপাল্লার ট্রেনের টিকিট। এক্ষেত্রে টিকিট পরীক্ষার ক্ষেত্রে যাত্রীদের সরাসরি সংস্পর্শ এড়ানোর জন্য দেওয়া হবে কিউআর (কুইক রেসপন্স) কোড যুক্ত ট্রেন টিকিট। কিছুদিন আগেই এমনই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে রেল বোর্ড। সেই সিদ্ধান্ত মোতাবেক খুব শীঘ্রই এই কিউ আর কোড যুক্ত টিকিট দেওয়া শুরু হয়ে যাবে ভারতীয় রেলের সমস্ত জোনেই।

রেলের কমারশিয়াল বিভাগ সূত্রে খবর, অনলাইনে টিকিট বুকিংয়ের পরই সংশ্লিষ্ট যাত্রীর নথিভুক্ত মোবাইল নম্বরে এসএমএসের মাধ্যমে কিউআর কোডের লিঙ্ক চলে আসবে। তাতে ক্লিক করলেই দেখা যাবে টিকিট। সেই কোড স্ক্যান দেখেই টিকিট পরীক্ষা করবেন রেলের টিকিট পরীক্ষক বা টিটিইরা। এখন একাধিক দূরপাল্লার ট্রেনে টিকিট দেখা হয় ট্যাবে। হাতে নিয়ে কাগজের টিকিট পরীক্ষা করার দিন শেষ। করোনা আবহে বন্ধ আছে রেলের টিকিট কাউন্টার বা পি আর এস। আই আর সি টি সি'র ওয়েবসাইট মারফত কাটতে হচ্ছে টিকিট। ফলে অনলাইনে টিকিট কাটায় ধীরে ধীরে অভ্যস্ত হয়ে উঠছেন যাত্রীরা।

লোকাল ট্রেনের ক্ষেত্রে দৈনিক বা মাসিক টিকিট এখন মোবাইল মারফত কেটে ফেলা যায়। ফলে টিকিট ব্যবস্থায় আমুল পরিবর্তন আসছে ভারতীয় রেলে। সম্প্রতি ট্রেন যাত্রায় সংক্রমণ ঠেকানোর জন্য ট্রেনের কোচ সম্পূর্ণ বদলে ফেলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে রেল। রায়বেরীলি কোচ ফ্যাক্টরিতে নয়া কোচ তৈরি হচ্ছেএবার ডিজিটাল কর্মসূচির হাত ধরে রেলের টিকিট চেকিংয়ের ব্যবস্থাকেই আরও আধুনিক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মন্ত্রকের শীর্ষ আধিকারিকেরা।কীভাবে কাজ করবে এই বিশেষ ব্যবস্থা?

রেল জানিয়েছে, যাঁরা ওয়েবসাইট বা মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট কাটবেন, তাঁরা তো বটেই, এমনকী যে সব যাত্রী স্টেশনের পিআরএস (প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেম) কাউন্টার থেকে টিকিট কাটবেন, তাঁদেরও কিউআর কোড সমেত টিকিট দেওয়া হবে। টিকিট বুকিংয়ের সময় যাত্রী যে মোবাইল নম্বর দেবেন, বুকিং স্টাফ সেই নম্বরেই কিউআর কোডের লিঙ্ক পাঠিয়ে দেবেন এসএমএস করে। সংশ্লিষ্ট যাত্রীকে তা সেভ করে রাখতে হবে। এবার চেকিংয়ের সময় যাত্রী ওই লিঙ্কে ক্লিক করলেই মোবাইল স্ক্রিনে কিউআর কোডটি চলে আসবে। সঙ্গে থাকা ট্যাব বা মোবাইলের মাধ্যমে কিউআর কোডটি স্ক্যান করবেন টিটিই। আর তাতেই সংশ্লিষ্ট যাত্রী সম্পর্কে বিশদ তথ্য পেয়ে যাবেন দায়িত্বপ্রাপ্ত ওই টিকিট পরীক্ষক।তবে যাঁরা পিআরএস কাউন্টার থেকে টিকিট কাটবেন, তাঁরা বরাবরের মতোই একটি ‘ফিজিক্যাল টিকিট’ও পাবেন। রেল জানিয়েছে, স্টেশনে ঢোকার সময় যদি টিকিট চেকিং হয়, তাহলে একইভাবে দেখাতে হবে কিউআর কোড। সেক্ষেত্রে ওই যাত্রীর যাবতীয় তথ্য আগেই নির্দিষ্ট ট্রেনের টিকিট চেকিং স্টাফের কাছে পৌঁছে যাবে অনলাইন ব্যবস্থার মাধ্যমে। রেল বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই মুহূর্তে করোনা পরিস্থিতিতে প্রায় ৮৫ শতাংশ যাত্রীই অনলাইনে টিকিট কাটছেন। তাছাড়া এই কিউআর কোডের সঙ্গে যেহেতু স্মার্ট ফোনের কোনও সম্পর্ক নেই, তাই কোনও যাত্রীরই সমস্যা হবে না। যদিও প্ল্যাটফর্ম টিকিটের ক্ষেত্রে কী করা হবে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। এছাড়া রেলের প্রিন্টিং প্রেসের সংখ্যাও ক্রমশ কমিয়ে ফেলা হচ্ছে। ফলে শীঘ্রই ট্রেনের যাত্রীদের ভরসা কিউ আর কোড যুক্ত টিকিট।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: August 8, 2020, 10:14 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर