• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • সামান্য একটি স্মার্টফোনের জন্য খুন হলেন ফ্লিপকার্টের ডেলিভারি বয়

সামান্য একটি স্মার্টফোনের জন্য খুন হলেন ফ্লিপকার্টের ডেলিভারি বয়

দেশে ই-কমার্স ব্যবসায় ইতিমধ্যেই বিপ্লব ঘটিয়ে ফেলেছে ফ্লিপকার্ট ৷ ই-কমার্স ওয়েবসাইটের বেশকিছু বাধা থাকে যেমন বিশ্বাস, সামর্থ্য, অ্যাক্সেস, আর এই বাধাগুলিকে সমাধান করার চেষ্টা করছে এই নতুন স্টার্টআপগুলি। তাই তাঁদের সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে ফ্লিপকার্ট।

দেশে ই-কমার্স ব্যবসায় ইতিমধ্যেই বিপ্লব ঘটিয়ে ফেলেছে ফ্লিপকার্ট ৷ ই-কমার্স ওয়েবসাইটের বেশকিছু বাধা থাকে যেমন বিশ্বাস, সামর্থ্য, অ্যাক্সেস, আর এই বাধাগুলিকে সমাধান করার চেষ্টা করছে এই নতুন স্টার্টআপগুলি। তাই তাঁদের সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে ফ্লিপকার্ট।

ডেলিভারি দিতে গিয়ে খুন হয়ে গেলেন ফ্লিপকার্টের কর্মী ৷ ডিসেম্বর মাসের ৯ তারিখ বেঙ্গালুরুর একটি জিমে স্মার্টফোন ডেলিভারি দিতে গিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #বেঙ্গালুরু: ডেলিভারি দিতে গিয়ে খুন হয়ে গেলেন ফ্লিপকার্টের কর্মী ৷ ডিসেম্বর মাসের ৯ তারিখ বেঙ্গালুরুর একটি জিমে স্মার্টফোন ডেলিভারি দিতে গিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি ৷ মৃতের নাম  নানজুনডাস্বামী ৷ জিমের এক ট্রেনার ফোনটির অর্ডার দিয়েছিলেন ৷ কিন্তু সেই ফোনটি কেনার পর্যাপ্ত টাকা ছিল না তার ৷ তাই ডেলিভারি দিতে এলে তার কাছ থেকে ফোন ছিনিয়ে নিয়ে তাকে ছুরি দিয়ে খুন করা হয় ৷ এর একদিন পর ডেলিভারি দিতে আসা ওই ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ ৷

    বরুণ কুমার নামে ২২ বছরের জিমের ট্রেনারকে নানজুনডাস্বামী খুনের অভিযোগে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ জানা গিয়েছে, ওই স্মার্টফোনটি কেনার তার সার্মথ্য ছিল না ৷ কিন্তু যে কোনও উপায়ে ফোনটি পাওয়ায় তার মূল উদ্দেশ্য ছিল ৷ তাই স্মার্টফোনের নানজুনডাস্বামীকে হত্যা করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি ৷

    পরিকল্পনা অনুযায়ী, বরুণ অনলাইনে ফোনটি অর্ডার দিয়ে জিমের ঠিকানা দেন ডেলিভারির জন্য ৷ পুলিশ জানিয়েছেন, ফ্লিপকার্টের ওই কর্মীর উপর প্রথমে একটি লোহার রড় ও ফুলের টব দিয়ে হামলা চালান তিনি ৷ অচৈতন্য হয়ে পড়লে ছুড়ি দিয়ে গলার নলি কেটে নানজুনডাস্বামীকে হত্যা করেন বরুণ ৷ এরপর বিল্ডিংয়ের বেসমেন্টে নিয়ে গিয়ে মৃতদেহটি ফেলে দিয়ে আসেন ৷

    বরুণ ১২,০০০ মূল্যের ওই ফোনটির পাশপাশি ডেলিভারি বয়ের কাছে থাকা বাকি ফোনগুলিও নিয়ে নেন ৷

    নানজুনডাস্বামী  দুদিন বাড়ি না ফেরায় থানায় অভিযোগ দায়ের করে তার পরিবারের সদস্যরা ৷ শেষ কোথায় ডেলিভারি দিতে গিয়েছিল নানজুনডাস্বামী সেই সূত্রে ধরেই জিমের নীচের তলা থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ ৷ খুনের পর থেকেই বরুণ জিম বন্ধ রেখেছিলেন ৷ তাই স্বভাবতই তার উপরই সন্দেহ জাগে পুলিশের ৷

    First published: