হোম /খবর /দেশ /
হাসপাতাল চা দেয়নি, সটান চায়ের দোকানে হাজির করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধ

হাসপাতাল চা দেয়নি, সটান চায়ের দোকানে হাজির করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধ

representative image

representative image

চায়ের দোকানে প্রশ্ন করলে বৃদ্ধ শান্ত গলায় উত্তর দেন, ''আমি করোনা আক্রান্ত, এবং এখানে চা খেতে এসেছি!''

  • Last Updated :
  • Share this:

#বেঙ্গালুরু: চায়ের নেশায় ছটফট করছিলেন করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধ, আর না পেরে শেষমেশ উঠেই পড়লেন হাসপাতালের বেড ছেড়ে! সটান হাসপাতালের চৌহদ্দি পেরিয়ে বাইরে রাস্তায়, চায়ের দোকানে! বেঙ্গালুরুর এই ঘটনায় চোখ কপালে উঠেছে হাসপাতালের কর্মী-সহ পথচলতি মানুষের! রীতিমত আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন চায়ের দোকানের মালিক ও অন্যান্য ক্রেতারা।

জানা যায়, বেঙ্গালুরুর নাগারভাবির বাসিন্দা ওই বৃদ্ধ একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এলে তাঁকে সেখান থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। অবশেষে তিনি মাইসুরু রোড হসপিটালে বেড পান। ভর্তি হওয়ার পর থেকেই হাসপাতালের কর্মীদের কাছে এক কাপ চায়ের জন্য বায়না করতে থাকেন। কিন্তু ঘড়ির কাটা গড়িয়েই যায়, চা আর আসে না! কাজেই নিজেই হাসপাতালের বেড ছেড়ে উঠে বেরিয়ে পড়েন বাইরে, রাস্তায় চায়ের দোকানে।

দোকানদার বৃদ্ধকে চা দিয়েও দেন, মনের আনন্দে যেই না কাপে চুমুক দিয়েছেন, পাশের এক ভদ্রলোক তাঁর হাতে লাগানো হাসপাতালের স্টিকার দেখতে পান। প্রশ্ন করলে বৃদ্ধ শান্ত গলায় উত্তর দেন, ''আমি করোনা আক্রান্ত, এবং এখানে চা খেতে এসেছি!'' বলা বাহুল্য, বৃদ্ধের কথায় তখন আশপাশের সবার মাথা ঢিপঢিপ করতে শুরু করে দিয়েছে! এরপর ওই চায়ের দোকানের মালিকই হাসপাতালে খবর দেন। হাসপাতাল কর্মীরা চায়ের দোকান থেকে বৃদ্ধকে উদ্ধার করে নিয়ে যান!

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Corona victim at tea stall