• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • পরিকাঠামো সম্পূর্ণ তৈরির আগেই কী নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত? উঠল প্রশ্ন

পরিকাঠামো সম্পূর্ণ তৈরির আগেই কী নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত? উঠল প্রশ্ন

Pic Courtesy Arun Jaitley

Pic Courtesy Arun Jaitley

পরিকাঠামো তৈরি ছিল না। তার আগেই তড়িঘড়ি নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের? শনিবার কার্যত তাই স্বীকার করে নিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: পরিকাঠামো তৈরি ছিল না। তার আগেই তড়িঘড়ি নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের? শনিবার কার্যত তাই স্বীকার করে নিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। নোট ছাপার কাজ সবে শুরু হয়েছে। ভোগান্তি এখনও ২ -৩ দিন সপ্তাহ চলবে। অর্থমন্ত্রীর এই স্বীকারোক্তির মধ্যেই জাপানে দাঁড়িয়ে আরও একপ্রস্থ কড়া ব্যবস্থার ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর। দেশে তখন নগদ টাকার জন্য হাহাকার। ব্যাঙ্ক - এটিএম থেকে খালি হাতে ফিরতে হচ্ছে মানুষকে।

    ব্যাঙ্কের লাইনে কেটে যাচ্ছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা। ৯০ শতাংশ এটিএম খোলা থেকেও বন্ধ। নোট বাতিলের ৪ দিন পর পরিস্থিতি যেন হাতের বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে। মানুষের ক্ষোভের আঁচ পেতেই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামল কেন্দ্র। তবে তাতে আশ্বস্ত হওয়ার বদলে ধোঁয়াশাই বাড়ল। এদিন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি বললেন, ‘এত বড় কারেন্সি বদল অভিযান ৷ একদিনে হবে না, কিছু সময় লাগবে ৷ এটা কোনও মেশিনের কাজ নয় ৷ এই অভিযানে কিছু চ্যালেঞ্জও রয়েছে ৷ আগে থেকে ATM মেশিনকে ঠিক করা হয়নি ৷ কারণ তাতে গোপনীয়তা রক্ষা করা যেত না ৷ দেশজুড়ে প্রায় ২ লক্ষ ATM রয়েছে ৷ ধীরে ধীরে কাজ চলছে সব মেশিনেই ৷’ অর্থমন্ত্রী এদিন আশ্বস্ত করার চেষ্টা করলেও অনেক প্রশ্নেরই উত্তর মিলল না। -পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রয়োজন ১৬ লক্ষ কোটি টাকা। কেন্দ্র ২ লক্ষ ৪০ হাজার কোটি টাকা ছাপিয়ে কিভাবে চাহিদা সামাল দেবে? -এটিএমগুলিকে কবে পরিষেবা স্বাভাবিক হবে? -প্রত্যন্ত অঞ্চল ও গ্রামে কবে ব্যাঙ্ক থেকে টাকা মিলবে? -কিভাবে সেই টাকা দেশের সর্বত্র পৌঁছে দেওয়া হবে? -ছোট সংস্থাগুলোর বেতন ও মজুরি কিভাবে হবে? দেশে টাকার জন্য হাহাকার, প্রতিশ্রুতি রাখতে ব্যর্থ কেন্দ্র। জাপানে সফররত প্রধানমন্ত্রী আবার হুঁশিয়ারি দিলেন আরও একপ্রস্থ ব্যবস্থার। এদিন নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘নোট বাতিলে সমস্যা হবে মানুষের ৷ একথা আগেই জানতাম  ৷ অসুবিধা সত্ত্বেও মানুষ আমাদের পাশে ৷ আমরা সৎ মানুষের পাশে, বেইমানদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্র ৷’ কালো টাকা রোখার উদ্যোগ দু-হাত তুলে সমর্থন করেছিল আম-আদমি। প্রথম কয়েকদিন অসুবিধা হলেও মেনে নিয়েছিলেন। কেন্দ্রের একের পর এক ব্যর্থতায় এখন তারাই নাজেহাল। দ্রুত পরিস্থিতি বদলাচ্ছে না। সেটা বুঝেই এবার ক্ষোভ আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা মোদি সরকারের ওপর।

    First published: