Covid Drug: ‘অলৌকিক নিরামক’ অন্ধ্রের আয়ুর্বেদিক করোনা ওষুধ! কার্যকরতা পরীক্ষায় ICMR-এ পাঠানোর সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের!

করোনার ‘মিরাকল নিরামক’ (Miracle Cure) আয়ুর্বেদিক ওষুধের উপর বৈজ্ঞানিক পরীক্ষার আদেশ দিল অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার।

করোনার ‘মিরাকল নিরামক’ (Miracle Cure) আয়ুর্বেদিক ওষুধের উপর বৈজ্ঞানিক পরীক্ষার আদেশ দিল অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার।

  • Share this:

#নেল্লোর: করোনাভাইরাসের আতঙ্ক যেন পিছু ছাড়ছে না। কী ভাবে মারণ ভাইরাসের কবল থেকে মুক্তি পাওয়া যায়, তা নিয়েই চলছে নানান গবেষণা। দেশ জুড়ে টিকাকরণের প্রক্রিয়া শুরু হয়েও, কিছু দিনের মধ্যে তার জোগানেও দেখা যায় ঘাটতি। এই পরিস্থিতিতে কোভিড ১৯ থেকে দূরে থাকার জন্য মাস্ক, স্যানিটাইজার ও সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং-এর মতো বিষয়গুলির উপর জোর দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। এই পরিস্থিতিতে করোনার ‘মিরাকল নিরামক’ (Miracle Cure) আয়ুর্বেদিক ওষুধের উপর বৈজ্ঞানিক পরীক্ষার আদেশ দিল অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার।

শুক্রবার অন্ধ্র প্রদেশের নেল্লোর জেলার কৃষ্ণাপটনম (Krishnapatnam) গ্রামে এক আয়ুর্বেদ চিকিৎসক কোভিড-১৯ এর 'নিরামক' হিসাবে আয়ুর্বেদ ওষুধ বিতরণ করছিলেন। সেই বিতরণ করা আয়ুর্বেদিক ওষুধের কার্যকারিতা সম্পর্কে বিশদে বৈজ্ঞানিক পরীক্ষার জন্য তা ICMR-এ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ওয়াই এস জগন মোহন রেড্ডি (Y S Jagan Mohan Reddy)।

ক্ষমতাসীন YSRCP বিধায়ক কে গোবর্ধন রেড্ডি (K Govardhan Reddy), তাঁর নিজের বিধানসভা কেন্দ্রের এই আয়ুর্বেদ ওষুধ প্রসঙ্গে শহর জুড়ে সক্রিয় ভাবে প্রচার করছেন। তাঁর কথায়, এটি কোভিড-১৯ এর একটি 'অলৌকিক নিরামক'।

রেড্ডির কথায়, “বেশ কয়েকজন কোভিড-১৯ রোগী যাঁরা এই আয়ুর্বেদ ওষুধ নিয়েছেন, তাঁদের শারীরিক অবস্থার যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। বোনিজি আনন্দাইয়া (Bonigi Anandaiah) একজন প্রখ্যাত আয়ুর্বেদ চিকিৎসক এবং তিনি কোভিড ১৯ নিরাময়ের জন্য পাঁচটি ওষধি সংমিশ্রণ খুঁজে পেয়েছেন। তাঁর ওষুধ কাজ করছে… এ কারণেই কৃষ্ণাপটনমে তাঁর বাড়ির বাইরে এত লোক জমায়েত করেছে।”

https://twitter.com/i/status/1395628408302759944

কিন্তু এই আয়ুর্বেদিক ওষুধ নিতে গিয়ে বাইরে মানুষ কোভিড প্রোটোকল মানছেন না, এই বিষয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে রেড্ডি জানান, পোস্ট করা সুরক্ষা কর্মীরা লোকেরা সামাজিক-দূরত্ব বজায় রাখার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন। তবে, প্রাক্তন স্বাস্থ্য সচিব পি ভি রমেশ (P V Ramesh) সহ স্বাস্থ্য বিভাগের একাধিক কর্মকর্তা এবং প্রাক্তন IAS অফিসাররা এই ধরণের বড় সমাবেশকে 'কোভিড বিপর্যয় তৈরির কৌশল' হিসাবে চিহ্নিত করেন।

একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, “চিকিৎসক বিশেষজ্ঞরা তাঁদের রিপোর্ট জমা না দেওয়া পর্যন্ত আমাদের বিধায়ক কে গোবর্ধন রেড্ডিকে এই তথাকথিত অলৌকিক নিরাময়ের প্রচার বা বিজ্ঞাপন না দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী এতে ক্ষুব্ধ ও বিরক্ত হয়েছেন।”

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: