Home /News /national /
বিমান পরিষেবায় ফের বড়সড় ধাক্কা, প্রায় ৫০ শতাংশ বাড়ল জ্বালানির দাম

বিমান পরিষেবায় ফের বড়সড় ধাক্কা, প্রায় ৫০ শতাংশ বাড়ল জ্বালানির দাম

প্রতীকী চিত্র৷

প্রতীকী চিত্র৷

কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বিমান পরিষেবা শুরু হওয়ার পর এ দেশে ১৮০ আসনের বিমানগুলিতে গড়ে ১০০ জনেরও কম যাত্রী উঠেছেন৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা এবং লকডাউনের ধাক্কায় এমনিতেই ধুঁকছে বিমান সংস্থাগুলি৷ এবার আরও একটি বড় ধাক্কা খেল তারা৷ জুন মাসে এক ধাক্কায় প্রায় ৫০ শতাংশ বৃদ্ধি পেল বিমান জ্বালানির দাম৷ এক কিলোলিটার অ্যাভিয়েশন টারবাইন ফুয়েলের দাম বেড়ে হয়েছে ৩৩৫৭৫ টাকা৷ যা গতমাসের তুলনায় ১১ হাজার টাকা বেশি৷

    প্রায় দু' মাস বন্ধ থাকার পর সোমবার থেকেই অভ্যন্তরীণ বিমান পরিষেবা শুরু হয়েছে৷ যদিও কোয়ারেন্টাইন সহ যাবতীয় বিধিনিষেধ মানার ঝক্কি, সংক্রমণের ভয়, আর্থিক মন্দার কারণে টিকিটের চাহিদা খুব একটা নেই৷ এই পরিস্থিতিতে জ্বালানির খরচ বৃদ্ধি বিমান সংস্থারগুলির কাছে জোরালো ধাক্কা তো বটেই৷

    কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বিমান পরিষেবা শুরু হওয়ার পর এ দেশে ১৮০ আসনের বিমানগুলিতে গড়ে ১০০ জনেরও কম যাত্রী উঠেছেন৷ একটি বিমানসংস্থার কর্তার মতে, বিভিন্ন শহরে যাঁরা আটকে রয়েছেন, তাঁরা একবার নিজেদের শহরে পৌঁছনোর পর অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড ধীরে ধীরে বাড়বে৷ তখন বিমান টিকিটের চাহিদাও কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী হবে৷ তবে মানুষ বেড়াতে যাওয়ার জন্য যে আগামী কয়েকমাসে বিমানের টিকিট কাটবেন না, তা ধরেই নিয়েছে বিমান সংস্থাগুলি৷

    ফেব্রুয়ারি মাসেও দিল্লিতে এক কিলোলিটার বিমান জ্বালানির দাম ছিল ৬০ থেকে ৬৫ হাজার টাকা৷ এর পরে মার্চ মাসের শুরু থেকে তা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে৷ কিন্তু ততদিনে বিমান চলাচলই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল৷ মে মাসে বিমান জ্বালানির দাম একেবারে তলানিতে পৌঁছেছিল৷ বিমান পরিবহণ ধীরে ধীরে শুরু হতেই তা ফের বাড়ল৷

    বিমান সংস্থাগুলির মতে, প্রায় ৪৮ শতাংশ দাম বেড়েছে জ্বালানির৷ যে ধাক্কা সামাল দেওয়া তাদের পক্ষে মুশকিল৷ ফলে কোন রুটে বিমান চালালে ক্ষতি তুলনামূলক কম, তা ফের খতিয়ে দেখছে সংস্থাগুলি৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    পরবর্তী খবর