corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিমান পরিষেবায় ফের বড়সড় ধাক্কা, প্রায় ৫০ শতাংশ বাড়ল জ্বালানির দাম

বিমান পরিষেবায় ফের বড়সড় ধাক্কা, প্রায় ৫০ শতাংশ বাড়ল জ্বালানির দাম
প্রতীকী চিত্র৷

কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বিমান পরিষেবা শুরু হওয়ার পর এ দেশে ১৮০ আসনের বিমানগুলিতে গড়ে ১০০ জনেরও কম যাত্রী উঠেছেন৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: করোনা এবং লকডাউনের ধাক্কায় এমনিতেই ধুঁকছে বিমান সংস্থাগুলি৷ এবার আরও একটি বড় ধাক্কা খেল তারা৷ জুন মাসে এক ধাক্কায় প্রায় ৫০ শতাংশ বৃদ্ধি পেল বিমান জ্বালানির দাম৷ এক কিলোলিটার অ্যাভিয়েশন টারবাইন ফুয়েলের দাম বেড়ে হয়েছে ৩৩৫৭৫ টাকা৷ যা গতমাসের তুলনায় ১১ হাজার টাকা বেশি৷

প্রায় দু' মাস বন্ধ থাকার পর সোমবার থেকেই অভ্যন্তরীণ বিমান পরিষেবা শুরু হয়েছে৷ যদিও কোয়ারেন্টাইন সহ যাবতীয় বিধিনিষেধ মানার ঝক্কি, সংক্রমণের ভয়, আর্থিক মন্দার কারণে টিকিটের চাহিদা খুব একটা নেই৷ এই পরিস্থিতিতে জ্বালানির খরচ বৃদ্ধি বিমান সংস্থারগুলির কাছে জোরালো ধাক্কা তো বটেই৷

কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বিমান পরিষেবা শুরু হওয়ার পর এ দেশে ১৮০ আসনের বিমানগুলিতে গড়ে ১০০ জনেরও কম যাত্রী উঠেছেন৷ একটি বিমানসংস্থার কর্তার মতে, বিভিন্ন শহরে যাঁরা আটকে রয়েছেন, তাঁরা একবার নিজেদের শহরে পৌঁছনোর পর অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড ধীরে ধীরে বাড়বে৷ তখন বিমান টিকিটের চাহিদাও কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী হবে৷ তবে মানুষ বেড়াতে যাওয়ার জন্য যে আগামী কয়েকমাসে বিমানের টিকিট কাটবেন না, তা ধরেই নিয়েছে বিমান সংস্থাগুলি৷

ফেব্রুয়ারি মাসেও দিল্লিতে এক কিলোলিটার বিমান জ্বালানির দাম ছিল ৬০ থেকে ৬৫ হাজার টাকা৷ এর পরে মার্চ মাসের শুরু থেকে তা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে৷ কিন্তু ততদিনে বিমান চলাচলই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল৷ মে মাসে বিমান জ্বালানির দাম একেবারে তলানিতে পৌঁছেছিল৷ বিমান পরিবহণ ধীরে ধীরে শুরু হতেই তা ফের বাড়ল৷

বিমান সংস্থাগুলির মতে, প্রায় ৪৮ শতাংশ দাম বেড়েছে জ্বালানির৷ যে ধাক্কা সামাল দেওয়া তাদের পক্ষে মুশকিল৷ ফলে কোন রুটে বিমান চালালে ক্ষতি তুলনামূলক কম, তা ফের খতিয়ে দেখছে সংস্থাগুলি৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: June 1, 2020, 2:40 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर