• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Assam NRC: সু্প্রিম কোর্টের নির্দেশে বাড়ল চুড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি তালিকা প্রকাশের সময়

Assam NRC: সু্প্রিম কোর্টের নির্দেশে বাড়ল চুড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি তালিকা প্রকাশের সময়

৩১ জুলাইয়ের বদলে শীর্ষ আদালত চুড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি অর্থাৎ NRC তালিকা প্রকাশের সময় বাড়িয়ে করল ৩১ অগাস্ট ৷

৩১ জুলাইয়ের বদলে শীর্ষ আদালত চুড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি অর্থাৎ NRC তালিকা প্রকাশের সময় বাড়িয়ে করল ৩১ অগাস্ট ৷

৩১ জুলাইয়ের বদলে শীর্ষ আদালত চুড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি অর্থাৎ NRC তালিকা প্রকাশের সময় বাড়িয়ে করল ৩১ অগাস্ট ৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: নাগরিকপঞ্জি প্রকাশের জন্য বাড়ল সময় ৷ চুড়ান্ত তালিকা প্রকাশের জন্য আরও একমাস সময় বাড়াল সুপ্রিম কোর্ট ৷ ৩১ জুলাইয়ের বদলে শীর্ষ আদালত চুড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি অর্থাৎ NRC তালিকা প্রকাশের সময় বাড়িয়ে করল ৩১ অগাস্ট ৷ এর আগে আদালতে কেন্দ্রীয় সরকার ও অসম সরকার উভয়ের তরফ থেকেই এনআরসি চূড়ান্ত করার জন্য ৩১ জুলাইয়ের পরিবর্তে মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করে ৷

    চুড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি প্রকাশের জন্য সময়সীমা বাড়ানোর আর্জি নিয়ে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয় এনআরসি কোঅর্ডিনেটরও ৷ সেই আবেদন মঞ্জুর করল সুপ্রিম কোর্ট ৷ কেন্দ্রীয় সরকার এই মামলায় সওয়াল করে, ‘এনআরসি তালিকা চূড়ান্ত ৷ তবে পুনর্বিবেচনার প্রয়োজন রয়েছে ৷ ভারত উদ্বাস্তুদের রাজধানী হতে পারে না ৷’

    কেন্দ্রের মতে নাগরিকপঞ্জি খসড়া তালিকায় বাংলাদেশী অভিবাসীদের নাম ভুল প্রক্রিয়ায় নথিভুক্ত করা হয়েছে ।প্রসঙ্গত, নাগরিকপঞ্জির (NRC) প্রথম খসড়া ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ও ১ জানুয়ারি, ২০১৮ সালে প্রকাশিত হয় । এই তালিকায় ৩.২৯ কোটি আবেদনকারীর মধ্যে ১.৯ কোটি মানুষের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল ।

    ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ সিটিজেন্স অর্থাৎ NRC মানে এটি রাজ‍্যের বৈধ নাগরিকদের তালিকা ৷ প্রথমবার এই তালিকা তৈরি হয় ১৯৫১ সালে ৷ ২০১৪ সালে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে এই তালিকা নবীকরণের কাজ শুরু হয় ৷ ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চের আগে অসমে আসা ব্যক্তি ও তাঁদের বংশধরদের নামই এনআরসিতে উঠবে বলে জানানো হয় ৷ ২০১৫ সালে এনআরসি নবীকরণের কাজ শুরু হয় ৷ কয়েক দফায় তারিখ পিছোনোর পরে ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর প্রথম খসড়া প্রকাশিত হয় ৷ দ্বিতীয় খসড়া তালিকা প্রকাশিত হয় ৩০ জুলাই, ২০১৮ ৷

    এই দ্বিতীয় তালিকায় ৪০ লক্ষের নাম ওঠেনি। আফগানিস্তান, ইরাক বা সিরিয়ার মতো গৃহযুদ্ধ নেই। অথচ, কলমের খোঁচায় আচমকাই নাগরিকত্ব হারানোর মুখে ৪০ লক্ষ মানুষ। অসমের খসড়া নাগরিকপঞ্জি-তে ৪০ লাখ মানুষের নামের পাশে লালকালির দাগ ৷ নাগরিক পঞ্জিতে নাম তোলার জন্য আবেদন করেন ৩ কোটি ২৯ লক্ষ মানুষ ৷ তালিকায় প্রকাশিত হয়েছে ২ কোটি ৮৯ লক্ষ মানুষের নাম ৷ বাকিরা যাবেন কোথায়? ঘিরে ধরছে অনিশ্চয়তা আর দেশছাড়া হওয়ার আশঙ্কা।

    First published: