• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • ASSAM NAGALAND HISTORIC STEP TAKEN TO STOP BORDER ISSUE BETWEEN TWO STATES SANJ

Assam Nagaland : মিটল দীর্ঘদিনের বিবাদ! অসম-নাগাল্যান্ড সীমান্ত নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত দুই রাজ্যের প্রধানের...

ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত

Assam Nagaland : বড় পদক্ষেপ নিলেন দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা এবং নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেউফিউ রিও।দীর্ঘদিনের বিবাদের অবসান ঘটিয়ে অসম-নাগাল্যান্ড সীমানা থেকে পুলিশ প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিল দুই রাজ্যই।

  • Share this:

    #গুয়াহাটি : অসম মিজোরাম (Assam Mizoram) বিবাদ নিয়ে একদিকে যখন সরগরম হয়ে উঠেছে জাতীয় রাজনীতি, তখনই অন্যদিকে অসম এবং নাগাল্যান্ডের (Assam Nagaland) সীমান্ত বিবাদ নিয়ে বড় এক সমস্যার সমাধান হল। অসম এবং নাগাল্যান্ডের সীমান্ত সমস্যা রীতিমতো ঐতিহাসিক। বহুদিন ধরেই কার্যত সীমানায় সমস্যা চলে আসছে দুই রাজ্যের মধ্যে। এমনকি মামলা গড়িয়েছে সুপ্রিমকোর্ট(Supreme Court) অবধি। অবশেষে এ বিষয়ে বড় পদক্ষেপ নিলেন দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা এবং নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেউফিউ রিও।দীর্ঘদিনের বিবাদের অবসান ঘটিয়ে অসম-নাগাল্যান্ড (Nagaland) সীমানা থেকে পুলিশ প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিল দুই রাজ্যই।

    মিটল বিবাদ, ৫১২ কিলোমিটার ব্যাপী সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিল দুই রাজ্যই। গতকাল ভারচুয়াল বৈঠকে দুই রাজ্যের সচিবালয়ের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। আর তারপরেই আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানালেন, “শান্তি স্থাপনের লক্ষ্যে ঐতিহাসিক পদক্ষেপ। অসম-নাগাল্যান্ড সীমানা থেকে সেনা প্রত্যাহারে রাজি হয়েছে দুই রাজ্যই।” সাথে সাথেই তিনি সমস্ত কৃতিত্ব দেন নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেউফিউ রিওকে।

    জানা গিয়েছে, জনখানা নালা এবং পার্বত্য এলাকার জঙ্গলে এবার থেকে নজরদারির জন্য টাওয়ার বসাতে পারবে আসাম বনদপ্তর। এছাড়া নাগাল্যান্ডের যে বাসিন্দারা এখানে যে ঝুপড়ি গড়ে তুলেছেন তাও ভেঙে দেওয়া হবে। শুধু তাই নয়, সমস্ত ধরনের পরিকাঠামো এবং অস্ত্রশস্ত্র ও সৈন্যবল সরিয়ে নেওয়া হবে। সীমানায় মূলত, নজরদারি চালানো হবে ড্রোনের মাধ্যমে।

    তবে অসম নাগাল্যান্ড সমস্যা মিটলেও এখনও অব্যাহত অসম মিজোরাম দ্বন্দ্ব। একদিকে যেমন বিজেপির সরকার রয়েছে অসম, তেমনই বিজেপি সমর্থিত সরকার রয়েছে মিজোরামেও। কিন্তু তাও ক্রমাগত বেড়ে চলেছে সীমান্ত সমস্যা। এমনকি গত ২৬ জুলাই মিজোরাম গুলিতে নিহত হয়েছেন ৬ জন আসাম পুলিশের আধিকারিক। তারপরই সমস্যা রীতিমতো বড় আকার ধারণ করেছে। এমনকি অসমের নাগরিকদের মিজোরাম যাওয়াও নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সেখানকার সরকার। সবমিলিয়ে পরিস্তিতি এখনও থমথমে দুই রাজ্যের মধ্যে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: