Home /News /national /
CAA-প্রতিবাদে এ বার গান্ধির পথে সত্যাগ্রহ আন্দোলন শুরু অসমে, নেতৃত্বে আসু

CAA-প্রতিবাদে এ বার গান্ধির পথে সত্যাগ্রহ আন্দোলন শুরু অসমে, নেতৃত্বে আসু

আসু-র সত্যাগ্রহ আন্দোলনে অসমবাসী

আসু-র সত্যাগ্রহ আন্দোলনে অসমবাসী

এ দিন আসু-র ডাকে সত্যাগ্রহ র‌্যালি ডিসি অফিস পর্যন্ত মার্চ করে৷ সেখানে তাদের আটক করে এক ঘণ্টা পর ছেড়ে দেওয়া হয়৷ ১৮ ডিসেম্বর নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে আবেদন শুনবে সুপ্রিম কোর্ট৷

  • Share this:

    #গুয়াহাটি: 'হয় সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাহার করুন, না হলে আমাদের গ্রেফতার করুন,' অসমে সিএএ বিক্ষোভকারীরা গান্ধির 'সত্যাগ্রহ' পথ বেছে নিল৷ এই সত্যাগ্রহকে নেতৃত্ব দিচ্ছে অল অসম স্টুডেন্ট ইউনিয়ন বা আসু (AASU)৷ অহিংসার পথেই আন্দোলন চলবে এ বার৷

    মহাত্মা গান্ধির ১৫০তম জন্মবার্ষিকী পালন করছে কেন্দ্র৷ AASU-র প্রধান উপদেষ্টা সমুজ্জ্বল কুমার ভট্টাচার্যের কথায়, 'আমরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে অনুরোধ করছি, আমাদের সত্যাগ্রহকে সম্মান দিয়ে নাগরিকত্ব আইন বাতিল করুন৷' কয়েক দিনের হিংসাত্মক আন্দোলনের পরে অসম এ বার অহিংস আন্দোলনের পথ বাছল৷ ৭ দিনের হিংসাত্মক আন্দোলনের পর আজ আসু-র রাজ্যজুড়ে সত্যাগ্রহ আন্দোলনে যোগ দিলেন হাজার হাজার অসমবাসী৷ অসমের বিভিন্ন জায়গায় একটাই স্লোগান, 'হয় সিএএ করুক, না হয় আমাকে গ্রেফতার করুক৷'

    সত্যাগ্রহ আন্দোলন গুয়াহাটিতে সত্যাগ্রহ আন্দোলন গুয়াহাটিতে

    সমুজ্জ্বলের কথায়, 'প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আমাদের অহিংস আন্দোলনের প্রশংসা করেছেন৷ তাই আমরা অনুরোধ করছি, দয়া করে আমাদের আন্দোলনকে সম্মান করুন৷ কোনও অসমিয়া এই আইনকে গ্রহণ করছেন না৷ প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, পোশাক দেখেই বিক্ষোভকারীদের চিহ্নিত করা যায়, এই ধরনের মন্তব্য খুবই দুর্ভাগ্যজনক৷'

    এ দিন আসু-র ডাকে সত্যাগ্রহ র‌্যালি ডিসি অফিস পর্যন্ত মার্চ করে৷ সেখানে তাদের আটক করে এক ঘণ্টা পর ছেড়ে দেওয়া হয়৷ ১৮ ডিসেম্বর নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে আবেদন শুনবে সুপ্রিম কোর্ট৷

    ১২ ডিসেম্বর পুলিশের গুলিতে আহত একজনের মৃত্যু হয়েছে অসমে। সিএএ বিক্ষোভে অসমে মোট ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ ট্রাকে আগুন ধরিয়ে দেওয়ায় দিন দু’য়েক আগে গুরুতর জখম হওয়া এক লরিচালকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবারই অসমের শোনিতপুরে একটি তেলের ট্যাঙ্কারে আগুন জ্বালিয়ে দেয় প্রতিবাদকারীরা। দগ্ধ চালককে উদ্ধার করে পুলিশ হাসপাতালে নিয়ে গেলেও তাঁকে বাঁচানো যায়নি।

    অসমের অর্থমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা এ দিন জানান, স্বাভাবিক পরিস্থিতি ধীরে ধীরে অসমে ফিরছে৷ ইন্টারনেট পরিষেবা শীঘ্রই চালু হয়ে যাবে৷ মন্ত্রীর কথায়, 'অসমের বিভিন্ন জায়গায় এখনও কারফিউ চলছে৷ খুব শীঘ্রই কারফিউ উঠে যাবে৷ রাজ্য পুলিশ ১৩৬টি মামলা দায়ের করেছে ও ১৯০ জনকে গ্রেফতার করেছে৷'

    Published by:Arindam Gupta
    First published:

    Tags: Assam Protest, ASSU, Citizenship Amendment Act

    পরবর্তী খবর