ভারত বনধে সমর্থন জানাল কোন কোন সংগঠন, দেখে নিন কী প্রভাব পড়তে চলেছে .....

ভারত বনধে সমর্থন জানাল কোন কোন সংগঠন, দেখে নিন কী প্রভাব পড়তে চলেছে .....

কৃষি আইনের বিরুদ্ধে হওয়া এই বনধকে সমর্থন করার জন্য কাউকে জোর করা হবে না বলে জানিয়েছেন কৃষক সংগঠনের নেতারা ৷

কৃষি আইনের বিরুদ্ধে হওয়া এই বনধকে সমর্থন করার জন্য কাউকে জোর করা হবে না বলে জানিয়েছেন কৃষক সংগঠনের নেতারা ৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কৃষি আইনের বিরুদ্ধে কৃষকদের আন্দোনল মঙ্গলবার ১৩ দিন হবে ৷ কেন্দ্রের এই নয়া আইনের বিরোধীতায় মঙ্গলবার দেশজুড়ে ভারত বনধের ডাক দিয়েছেন কৃষকরা ৷ এদিন রাজনৈতিক দলের পাশাপাশি বেশ কিছু অন্যান্য সংগঠনও ভারত বনধকে সমর্থন জানিয়েছে ৷ ৮ ডিসেম্বর কৃষকদের ডাকা ভারত বনধকে সমর্থন জানিয়েছে, এশিয়ার সবচেয়ে বড় আজাদপুর সবজি মান্ডি ৷ দিল্লিতে আজাদপুর সবজি মান্ডি-সহ সমস্ত মান্ডির এদিন ব্যবসা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ৷ এর পাশাপাশি অল দিল্লি অটো-ট্যাক্সি ট্রান্সপোর্ট (Auto-Taxi Transport) কংগ্রেস ইউনিয়ন পরিষেবা বন্ধ রাখার ঘোষণা করেছে ৷ এছাড়া ওলা ও উবেরের ড্রাইভার অ্যাসোসিয়েশন এই বনধকে সমর্থন জানিয়েছে ৷ দিল্লিতে এদিন চলবে না ওলা বা উবের ৷

    কৃষকদের বনধকে সমর্থন জানিয়েছে দিল্লি বার কাউন্সিল ৷ কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স দিল্লি জানিয়েছ ৮ ডিসেম্বর দেশজুড়ে বাজার এবং ট্রান্সপোর্ট খোলা থাকবে ৷ অল ইন্ডিয়া ট্রান্সপোর্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, ৮ ডিসেম্বর দেশজুড়ে হওয়া ভারত বনধকে তারা সমর্থন জানাচ্ছে না ৷ কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স ও অল ইন্ডিয়া ট্রান্সপোর্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন একটি যৌথ বিবৃতি জারি করে জানিয়েছে যে ভারত বনধ নিয়ে কোনও কৃষক সংগঠন বা কৃষক আন্দোলনের নেতাদের থেকে ভারত বনধ নিয়ে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়নি আর না তাদের বনধ সমর্থন করার কথা বলা হয়েছে ৷ তাই তারা এদিন ভারত বনধে সামিল হবেন না ৷

    কংগ্রেস, তৃণমূল, বামপন্থী দলগুলি ছাড়াও সমাজবাদী পার্টি, আরজেডি, ডিএমকে, শিবসেনা, বিএসপি, আম আদমি পার্টি-ও কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছে।

    কৃষক সংগঠনের নেতারা সোমবারই জানিয়ে দিয়েছিলেন যে বনধের সময় সমস্ত এমারজেন্সি পরিষেবা চালু থাকবে ৷ পাশাপাশি তাঁরা এটাও নিশ্চিত করেছেন যে কৃষি আইনের বিরুদ্ধে হওয়া এই বনধকে সমর্থন করার জন্য কাউকে জোর করা হবে না ৷

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published:

    লেটেস্ট খবর