‘কাশ্মীর নিয়ে শুধু পাকিস্তানের সঙ্গেই কথা হবে’, ট্রাম্পকে জবাব বিদেশমন্ত্রীর

‘কাশ্মীর নিয়ে শুধু পাকিস্তানের সঙ্গেই কথা হবে’, ট্রাম্পকে জবাব বিদেশমন্ত্রীর

বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটনে সাংবাদিক বৈঠকে কাশ্মীর নিয়ে ট্রাম্পের মন্তব্যের উপযুক্ত জবাব দিলেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটনে সাংবাদিক বৈঠকে কাশ্মীর নিয়ে ট্রাম্পের মন্তব্যের উপযুক্ত জবাব দিলেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ৷ শুক্রবার মার্কিন বিদেশ সচিবকে জয়শঙ্কর স্পষ্টই জানিয়েদেন, ‘কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে যে কোনও আলোচনার ক্ষেত্রে ভারত শুধুমাত্র পাকিস্তানের সঙ্গেই কথা বলবে ৷ ’

jai

ফের কাশ্মীর নিয়ে সরব হলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ৷ বৃহস্পতিবার কাশ্মীর নিয়ে মন্তব্য করে ট্রাম্প বলেন, ‘ভারত ও পাকিস্তান বহু যুগ ধরে চলা এক সমস্যা নিয়ে জর্জড়িত ৷ আর সে ব্যাপারে আমার কাছে সাহায্য চেয়েছে, আমি সাহায্য করতে আগ্রহী ৷ যদি তাদের সাহায্য লাগে ৷’

Loading...

সম্প্রতি ওয়াশিংটনে এক সাংবাদিক বৈঠকে কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতকে সাহায্য করা নিয়ে যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়, সেই প্রশ্নেরই উত্তর দিতে গিয়ে ট্রাম্প জানান, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পাকিস্তানের ইমরান খান দু’জনেই খুব ভাল মানুষ ৷ যদি কাশ্মীরের ব্যাপারে আমার সাহায্য চান তাঁরা আমি অবশ্যই এগিয়ে আসব ৷ তবে পুরো বিষয়টাই তাঁদের মতামতের ওপর নির্ভর করছে ৷’

ভারত-পাকিস্তান দু’দেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা ‘কাশ্মীর সমস্যা’ মেটাতে এবার আগ্রহী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ৷

দু’দেশের মধ্যে যুগ যুগ ধরে চলে আসা এই সমস্যা মেটানোর জন্য মধ্যস্থতাকারী হতে রাজি হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ৷ এতদিন কাশ্মীর সমস্যায় আমেরিকা জানিয়ে আসত, যে এই সমস্যা দু’দেশের সমস্যা ৷ তাই তাদের নিজেদের মধ্যেই তা মেটানো সম্ভব ৷ এবার এক ধাপ এগিয়ে ট্রাম্প জানালেন ‘‘ যদি আমার সাহায্য চাওয়া হয় ৷ তাহলে আমি দু’দেশের মধ্যস্থতাকারী হতে রাজি ৷ সোমবার পাক প্রেসিডেন্ট ইমরান খানের সঙ্গে আলোচনার পর হোয়াইট হাউসে এ কথা ঘোষণা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ৷ পাক প্রধানমন্ত্রীকে ট্রাম্প বলেন, ‘‘ আমার এ বিষয় কোনও সাহায্য লাগলে অবশ্যই জানাবেন ৷ ’’ পাশাপাশি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও কাশ্মীর সমস্যা সমাধানে তাঁর সাহায্য চেয়েছেন, তা জানান ট্রাম্প ৷

আমেরিকা সফরের শুরুতে অবশ্য চাপে পড়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিন দিনের সফরে গত কাল, রবিবার আমেরিকা পৌঁছন তিনি। কিন্তু বিমানবন্দরে তাঁকে অভ্যর্থনা জানাতে হাজির ছিলেন না মার্কিন প্রশাসনের কোনও আধিকারিক। এর আগে কোনও রাষ্ট্রনেতার সঙ্গে এমন কোনও আচরণ করা হয়েছে কি না তা মনে করতে পারছেন না অনেকেই।

First published: 11:39:32 AM Aug 02, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर