• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • দেশ
  • »
  • ANDRA PRADESH GOVERNMENT DECIDES TO MAKE RS 10 LAKH FIXED DEPOSIT FOR THE KIDS WHO HAVE LOST THEIR PARENTS IN PANDEMIC SWD

Covid 19: করোনায় অনাথ হয়েছে বহু শিশু, তাদের জন্য বিশেষ ঘোষণা অন্ধ্রপ্রদেশ সরকারের

এই মহামারীতে (Pandemic) বহু শিশু অনাথ হয়েছে। কোভিড ১৯ কেড়ে নিয়েছে মা ও বাবা দুজনেরই প্রাণ। এমন শিশুদের জন্যই বিশেষ ঘোষণা করলেন অন্ধ্রপ্রদেশের (Andhra Pradesh) মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডি।

এই মহামারীতে (Pandemic) বহু শিশু অনাথ হয়েছে। কোভিড ১৯ কেড়ে নিয়েছে মা ও বাবা দুজনেরই প্রাণ। এমন শিশুদের জন্যই বিশেষ ঘোষণা করলেন অন্ধ্রপ্রদেশের (Andhra Pradesh) মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডি।

  • Share this:

    #হায়দরাবাদ: দ্বিতীয় ঢেউতে করোনার (Second wave corona) ভয়ঙ্কর রূপ দেখেছে গোটা ভারতের মানুষ। দেশজুড়ে ভাইরাস এমন হত্যালীলা চালাচ্ছে যে হাহাকার পড়ে গিয়েছে। এই মহামারীতে (Pandemic) বহু শিশু অনাথ হয়েছে। কোভিড ১৯ কেড়ে নিয়েছে মা ও বাবা দুজনেরই প্রাণ। এমন শিশুদের জন্যই বিশেষ ঘোষণা করলেন অন্ধ্রপ্রদেশের (Andhra Pradesh) মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডি। করোনা কালে অনাথ হওয়া প্রত্যেক শিশুর জন্য ১০ লক্ষ টাকা ফিক্সড ডিপজিট করলেন তিনি।

    এই মুহূর্তে আংশিক লকডাউন চলছে অন্ধ্রপ্রদেশে। এই মাসের শেষ পর্যন্ত সেই আংশিক লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। করোনা নিয়ন্ত্রণে আনতে অন্তত চার সপ্তাহ কার্ফুর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। গ্রামীণ অঞ্চলগুলিতেও যাতে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে থাকে সেই নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

    সোমবারই জগনমোহন ঘোষণা করেন যে রাজ্যে যে শিশুরা মহামারীতে বাবা ও মা দুজনকেই হারিয়েছে তাদের জন্য ১০ লক্ষ টাকা ফিক্সড ডিপজিট করা হবে। ওই শিশুদের অ্যাকাউন্টে থাকবে ফিক্স ডিপজিটের টাকা। সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্কের সঙ্গে জোট বেঁধে সরকার এই ফিক্স ডিপজিটের দায়িত্ব নিয়েছে। শিশুর ২৫ বছর বয়স অবধি এই ফিক্স ডিপজিট বৈধ থাকবে। শিশুর অভিভাবককে প্রতি মাসে ফিক্স ডিপজিটের ৫-৬ শতাংশ টাকা দেওয়া হবে।

    রাজধানী দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালও অনাথ শিশুদের জন্য বিশেষ ঘোষণা করেছেন। যে শিশুরা করোনায় মা ও বাবাকে হারিয়েছে তাদের বিনামূল্যে শিক্ষা প্রদান করার ঘোষণা করেছেন তিনি। শুধু শিশুদের নয়। করোনার জন্য বহু অসহায় নাগরিককে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। বিশেষ করে যে সমস্ত প্রবীণ নাগরিকরা পরিবারের উপার্জনকারী সদস্যকে হারিয়েছেন তাদের আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে বলে শুক্রবার ঘোষণা করেছে দিল্লি সরকার।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: