Gift for Eid in Telangana: করোনা-কালের ইদ, রাজ্যের সাড়ে চার লক্ষ দুঃস্থ ঘরে পৌঁছবে উপহারের প্যাকেট!

Gift for Eid in Telangana: করোনা-কালের ইদ, রাজ্যের সাড়ে চার লক্ষ দুঃস্থ ঘরে পৌঁছবে উপহারের প্যাকেট!

দুঃসময়ে সাহায্য়

সরকার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতি বছর বাতকম্মা ও ক্রিসমাসেও এই ধরনের উপহার দেওয়া হয়ে থাকে। এবছর ইদে রাজ্যের ৮১৫টি ও গ্রেটার হায়দরাবাদের ৪০০টি মসজিদের মাধ্যমে প্রায় সাড়ে চার লক্ষ উপহারের প্যাকেট বিলি করা হবে দুঃস্থ মুসলিম মানুষজনের মধ্যে।

  • Share this:

    #তেলেঙ্গানা: গত বছর ছিল করোনার প্রথম ঢেউ, আর এবার করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে (Corona Second Wave) বিপর্যস্ত গোটা দেশ। বাদ নেই তেলেঙ্গানাও। প্রতিদিন বাড়ছে করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। কিন্তু এরই মধ্যে আসছে খুশির ইদ। কিন্তু এবারের পরিস্থিতিতে কি খুশি থাকা যায়? তবু তেলেঙ্গানা সরকারের পক্ষ থেকে রাজ্যের দুঃস্থ মানুষদের মুখে একটু হাসি ফোটানোর জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে উপহার। প্রতি বছরই এই উপহার দিয়ে থাকে সরকার। কিন্তু গত বছর করোনার কারণে তা বন্ধ ছিল। এবার করোনার আরও দাপাদাপি। তবু, তারই মধ্যে মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর চেষ্টা করছে কে.চন্দ্রশেখর সরকার।

    সরকার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতি বছর বাতকম্মা ও ক্রিসমাসেও এই ধরনের উপহার দেওয়া হয়ে থাকে। এবছর ইদে রাজ্যের ৮১৫টি ও গ্রেটার হায়দরাবাদের ৪০০টি মসজিদের মাধ্যমে প্রায় সাড়ে চার লক্ষ উপহারের প্যাকেট বিলি করা হবে দুঃস্থ মুসলিম মানুষজনের মধ্যে। ওই উপহারের প্যাকেটে থাকবে পোশাক, মিষ্টির প্যাকেটও। এই পুরো খরচই বহন করবে তেলেঙ্গানার ওয়াকফ বোর্ড।

    ইতিমধ্যেই রাজ্যের প্রতি বিধায়ককে চারটি ও পুরসভাগুলিকে দুটি মসজিদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কর্মসূচির সূচনা করেছেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহম্মদ মেহবুব ও তেলেঙ্গানা ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান মহম্মদ সেলিম।

    প্রসঙ্গত, তেলেঙ্গানাও ব্যাপক হারে ছড়াচ্ছে করোনা সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১০, ১২২ জন, মৃত্যু হয়েছে ৫২ জনের। আর মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৪ লক্ষ, মৃতের সংখ্যা ২,০৯৪। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের মানুষের মুখে একটু হাসি ফোটানোই বড় চ্যালেঞ্জ সরকারের।

    তেলঙ্গনায় এখন চলছে নাইট কারফিউ। তেলঙ্গনা প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী, রাত ৯টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত জারি থাকছে এই নিষেধাজ্ঞা। রাত্রিকালীন কারফিউ বলবৎ থাকবে আগামী ১ মে ভোর পর্যন্ত। তবে, জরুরি পরিষেবাকে এই কারফিউর আওতা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

    Published by:Suman Biswas
    First published:
    0