ChenabBridge: পৃথিবীর উচ্চতম রেলসেতু চেনাব, যা হার মানাবে আইফেল টাওয়ারকেও!

ChenabBridge: পৃথিবীর উচ্চতম রেলসেতু চেনাব, যা হার মানাবে আইফেল টাওয়ারকেও!

Chenab Bridge,(Twitter/@PiyushGoyal)

এই সেতু নির্মাণের ফলে ওই অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নেও একটা বড়সড় প্রভাব পড়বে বলে আশা করছেন ওখানকার মানুষ।

  • Share this:

#জম্মু: এক ঐতিহাসিক মূহুর্তের সাক্ষী হতে চলেছে ভূস্বর্গ। দীর্ঘ দিনের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে সোমবার শেষ হতে চলেছে জম্মু ও কাশ্মীরের চেনাব নদীর উপরে ধনুকের মতো বাঁকানো রেলসেতুটির কাজ । এই সেতু কাশ্মীরকে ভারতের বাকি অংশের সঙ্গে যুক্ত করবে। ১ হাজার ২৫০ কোটি টাকা খরচে তৈরি হওয়া চেনাব নদী থেকে এই সেতুটির উচ্চতা সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ৩৫৯ মিটার উপরে। যা প্যারিসের আইফেল টাওয়ারের থেকেও উঁচু। সব মিলিয়ে যার দৈর্ঘ্য ১ হাজার ৩১৫ মিটার। এই সেতু নির্মাণের ফলে ওই অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নেও একটা বড়সড় প্রভাব পড়বে বলে আশা করছেন ওখানকার মানুষ। কারণ পর্যটকদের কাছে এক অন্যতম আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হতে চলেছে এই উচ্চতম সেতুটি ।

সেতুটির বৈশিষ্ট্যগুলি জেনে নেওয়া যাক: রিখটার স্কেলে ৮ ম্যাগনিচ্যুড পর্যন্ত ভূমিকম্পের তীব্রতা সহ্য করতে পারবে এই সেতু। অত্যন্ত শক্তিশালী বিস্ফোরকের আঘাতও অনায়াসে সহ্য করার ক্ষমতা রয়েছে এটির। সম্পূর্ণ প্রকল্পটি হল ৩২৬ কিলোমিটারের। সেতু তৈরিতে ব্যবহার হয়েছে ২৫ হাজার মেট্রিক টন স্টিল, যা ২৬৬ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে হাওয়ার গতি সহ্য করতে সক্ষম।

সেতুর উপর দিয়ে সর্বোচ্চ ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে ছুটে যেতে পারবে ট্রেন।

সেতুটি ২৭২ কিলোমিটার রেল সংযোগ প্রকল্পের অংশ এবং উত্তর রেলওয়ে ব্যয় করেছে প্রায় ২৮,০০০ কোটি টাকা।

সেতুটিতে ১৪ মিটার ডুয়েল ক্যারিজওয়ে এবং একটি ১.২ মিটার প্রশস্ত কেন্দ্রীয় প্রান্ত থাকবে।

সেতুটি নির্মাণের জন্য ইস্পাতকে বিশেষ ভাবে বেছে নেওয়া হয়েছিল কারণ এটি প্রকল্পটিকে আরও অর্থনৈতিক করে তুলবে। ধাতুটি মাইনাস ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা এবং প্রতি ঘণ্টায় ২০০ কিলোমিটারের বাতাসের গতি প্রতিরোধ করতে সক্ষম হবে।

সেতুটির প্রস্তুতি ২০০২ সালে শুরু হয়েছিল এবং প্রাথমিক পরিকল্পনাটি ছিল কাশ্মীরের উত্তরের শহর বারমুল্লাকে নয়াদিল্লির সঙ্গে যুক্ত করা। ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন অটল বিহারী বাজপেয়ী সরকার এই প্রকল্পটিকে অগ্রাধিকার দিয়েছে, তবে কর্মকর্তাদের মতে, আবহাওয়া পরিস্থিতি এবং চুক্তির কারণে প্রকল্পটি বেশ কিছু বাধার সম্মুখীন হয়েছিল।

এটিই হতে চলেছে বিশ্বের উচ্চতম রেল সেতু। এটি মূলত উধমপুর-শ্রীনগর-বারামুল্লা রেল প্রকল্পেরই একটি অংশ। সেতুটি তৈরিতে খরচ হয়েছে প্রায় ১ হাজার ২৫০ কোটি টাকা।
Published by:Pooja Basu
First published: