corona virus btn
corona virus btn
Loading

মাতাল বাঁদর!‌ ২৫০ জনকে কামড়ানোর অভিযোগে আজীবন খাঁচাবন্দি করার সিদ্ধান্ত

মাতাল বাঁদর!‌ ২৫০ জনকে কামড়ানোর অভিযোগে আজীবন খাঁচাবন্দি করার সিদ্ধান্ত
প্রতীকী ছবি. REUTERS/Soe Zeya

বাঁদরের স্বভাব পাল্টায়নি। তিন বছর হয়ে গেল, এখনও একই রকমের আছে বাঁদরটি

  • Share this:

#‌কানপুর:‌কখনও শুনেছেন একটি বাঁদরকে যাবজ্জীবন কারাবাসের সাজা দেওয়া হয়েছে?‌ এতদিন না হলেও এবার হয়েছে। কানপুর চিড়িয়াখানা একটি বাঁদরকে নিয়ন্ত্রণ করতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কালুয়া নামে এই বাঁদরটি কম করে ২৫০ জনকে কামড়েছে, যাঁদের মধ্যে একজনের মৃত্যুও হয়েছে। আর সেই কারণেই এটিকে বন্দি করার নির্দেশ দিয়েছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। মির্জাপুর জেলায় এককথায় তাণ্ডব চালিয়েছে এই বাঁদরটি।

খবর পাওয়া যাচ্ছে, ওই এলাকায় একটি লোকের পোষা বাঁদর এটি। আর সেই লোকটি এটিকে নিয়মিত মদ খাওয়াতেন। আর সেই কারণেই একটা সময়ের পর বাঁদরটি মদে আসক্ত হয়ে পড়ে। তারপর বাঁদরের মালিকের মৃত্যু হয়। তারপর থেকে বাঁদরটির নিয়মিত মদ খাওয়া বন্ধ হয়ে যায়। তাতেই রেগে কামড়াতে শুরু করে সেটি। শেষে বাধ্য হয়ে এলাকার বাসিন্দারা চিড়িয়াখানায় খবর দেন। তাঁরা এসে বন্দি করে বাঁদরটিকে।

চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ‘‌আমরা প্রথমে বাঁদরটিকে ধরে কয়েকদিন আলাদা করে রেখেছিলাম। তারপর এটিকে নিয়ে যাওয়া হয় চিড়িয়াখানায়। সেখানে একটি আলাদা খাঁচায় তাকে রাখা হয়। কিন্তু বাঁদরের স্বভাব পাল্টায়নি। তিনবছর হয়ে গেল, এখনও একই রকমের আছে বাঁদরটি। তাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, সারাজীবনই এটিকে খাঁচা বন্দি রাখা হবে। ছাড়া থাকলে এটি সাধারণ মানুষের ক্ষতি করবে।’‌

চিকিৎসকেরও মতও একই। তিনি বলেছেন, বাঁদরের বয়স ছ’‌বছর। এটিকে ছেড়ে দিলেও এর স্বভাব পাল্টাবে না।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: June 16, 2020, 1:22 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर