ল্যান্ডমাইন ধ্বংসকারী ড্রোন বানিয়ে পাঁচ কোটি টাকা পেলেন ১৪ বছরের হর্ষবর্ধন

ল্যান্ডমাইন ধ্বংসকারী ড্রোন বানিয়ে পাঁচ কোটি টাকা পেলেন ১৪ বছরের হর্ষবর্ধন

১৪ বছরের হর্ষবর্ধন জালা এখন সকলের চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছেন ৷ দশম শ্রেণির ছাত্র এমন কিছু করে দেখিয়েছে যা শুনে সকলেই হতবাক ৷

  • Share this:

#আমেদাবাদ: মঙ্গলবার শুভ সূচনা হয় অষ্টম ভাইব্র্যান্ট গুজরাত গ্লোবাল সামিটের ৷ এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ এ বছরের গুজরাতে অনু্ষ্ঠিত হওয়া গ্লোবাল সামিটে গোটা দুনিয়া থেকে অংশ নেবে ১২ টি দেশের বাণিজ্যিক প্রধানরা ৷ যার মধ্যে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জাপান, নেদারল্যান্ডস, পোল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, সুইডেন ও আরব যুক্তরাষ্ট্র ৷ তবে এরিই মধ্যে ১৪ বছরের হর্ষবর্ধন জালা এখন সকলের চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছেন ৷ দশম শ্রেণির ছাত্র এমন কিছু করে দেখিয়েছে যা শুনে সকলেই হতবাক ৷ হর্ষ এমন একটি ড্রোন বানিয়েছেন যার জন্য গুজরাত সরকার তাকে ৫ কোটি টাকা দিয়েছেন ৷

হর্ষের বানানো ড্রোনের বিশেষত্ব হল যে এর সাহায্যে ল্যান্ডমাইন খুঁজে বের করা যাবে ৷ শুধু তাই নয় ল্যান্ডমাইন নিষ্ক্রিয় করার কাজও করে এই ড্রোন ৷ মেধাবী এই ছাত্র ড্রোন প্রোডাকশনের ব্যবসা করতে চান ৷ এবং তার উপরে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে ৷

হর্ষবর্ধন জানিয়েছেন, ‘২০১৬ সালে টিভি দেখার সময় একটি খবরে জানতে পারি যে ল্যান্ডমাইন নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টায় বেশ কয়েকজন সেনার মৃত্যু হয়েছে ৷ তখনই মনে হয় যে এরকম কোনও ড্রোন যদি বানানো যায় যাতে ল্যান্ডমাইন নিষ্ক্রিয় করা সম্ভব হয় তাহলে অনেক সেনার প্রাণ বেঁচে যাবে ৷’

হর্ষ আরও জানিয়েছেন যে এই ড্রোন বানোনর চেষ্টায় তার প্রায় পাঁচ লাখ টাকার খরচা হয়ে গিয়েছে ৷ প্রথম দুটি ড্রোনর জন্য তার অভিভাবকরা ২ লক্ষ টাকা খরচা করেছে ৷ তৃতীয় ড্রোনের জন্য রাজ্য সরকার তাকে তিন লক্ষ টাকার সাহায্য করেছিল ৷

তিনি আরও জানান, ড্রোনে ২১ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার পাশাপাশি ইনফ্রারেড, আরজিবি সেনসর ও থার্মল মিটার রয়েছে ৷ ক্যামেরা হাই রেজিলিউশন ছবি তুলতে পারবে ৷ মাটি থেকে দু ফিট উপরে ড্রোন উড়বে ৷ আট বর্গ মিটার পর্যন্ত ড্রোন রেডিয়েশন পাঠাতে থাকে ৷ এর সাহায্যে জানা যাবে ল্যান্ড মাইন কোথায় রয়েছে ৷ ল্যান্ড মানইকে নষ্ট করার জন্য ৫০ গ্রাম ওজনের একটি বোমা ড্রোনের সঙ্গেই থাকবে ৷

First published: 04:57:10 PM Jan 13, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर