নতুন কৃষক আইনেই কৃষকদের সমস্যার সমাধান, ‘মন কি বাতে’ জানালেন মোদি

নতুন কৃষক আইনেই কৃষকদের সমস্যার সমাধান, ‘মন কি বাতে’ জানালেন মোদি
যখন কৃষক বিক্ষোভে ফুঁসছে রাজধানী , তখন মোদির মনের কথায় কৃষকদের কথা।

যখন কৃষক বিক্ষোভে ফুঁসছে রাজধানী , তখন মোদির মনের কথায় কৃষকদের কথা।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কৃষক আন্দোলনে উত্তাল দেশ ৷ হাজার হাজার কৃষক পায়ে হেঁটে এগিয়ে আসছেন দিল্লির দিকে ৷ একটা দাবি, অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে নতুন কৃষি বিল ৷ যখন কৃষক বিক্ষোভে ফুঁসছে রাজধানী , তখন মোদির মনের কথায় কৃষকদের কথা। এত প্রতিবাদ সত্ত্বেও সরকার যে এই কৃষি আইনের বদলের জন্য কোনও চিন্তা ভাবনা করছে না তার প্রমাণ মিলল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি’র এদিনের ‘মন কি বাত ’ অনুষ্ঠানে ৷ প্রধানমন্ত্রী এদিন নয়া কৃষি আইনের পক্ষে সওয়াল করে বলেন, ‘কৃষি আইন কৃষকদের ভালর জন্যই। কৃষকদের জন্য নতুন সম্ভাবনার দরজা খুলেছে কৃষি সংস্কার।’ঘটনাস্থল হরিয়ানার অম্বালা। কৃষকরা বিক্ষোভে ফুঁসছেন। পুলিশ জলকামান দাগিয়েছে। আচমকা বিক্ষোভকারীদের মধ্যে থেকে এক যুবক লাফ মেরে জলকামানের মাথায় উঠে বন্ধ করে দিলেন জলের আঘাত। কৃষক নেতা নভদীপ সিংহের ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল। নভদীপের মতই হাজারে হাজারে কৃষকের একটাই দাবি। বাতিল হোক নতুন কৃষি আইন। দিল্লি-হরিয়ানা-পঞ্জাবে ব্যাপক প্রতিবাদ-ক্ষোভ। কখনও পুলিশের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ। কৃষকদের দিল্লি ঢোকা আটকাতে পুলিশের কাঁদানে গ্যাস, জলকামান। এর ঠিক উল্টো ছবির কথাই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷রবিবার মন কি বাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মুখেও কৃষকদের কথা। কৃষকদের উদ্দেশে মোদির বার্তা, কৃষি আইন কৃষকদের উপকারের জন্যই। উদাহরণ দিয়ে বোঝালেন কৃষি আইনের ভাল দিক। বহুদিন ধরেই কৃষকদের তরফ থেকেই কৃষি সংস্কারের দাবি উঠছিল, সেই প্রসঙ্গ তুলে প্রধানমন্ত্রী মোদি এদিন বলেন, ‘কৃষকদের দাবি মেনেই তৈরি নয়া কৃষি আইন ৷ অনেক আলোচনার পর কৃষকদের দিকটি খতিয়ে দেখেই এই আইনের সংস্কার ৷’


    নতুন কৃষি আইনের সুবিধার কথা বলতে গিয়ে মহারাষ্ট্রের জনৈক ভুট্টা চাষির উদাহরণ দেন প্রধানমন্ত্রী ৷ কৃষি আইন নিয়ে বলতে গিয়ে মোদি বলেন, ‘নয়া আইনে কৃষকদের হাতে অধিকার ৷ কৃষি সংস্কার কৃষকদের নতুন দিশা দেখিয়েছে ৷ কৃষি সংস্কারে কৃষকদের অধিকার সুরক্ষিত ৷ কৃষি আইনে কৃষকদের আয় নিশ্চিত ৷’ একইসঙ্গে বিরোধীদের নিশানা করে মোদির তোপ, কৃষকদের ভুল বোঝানো হচ্ছে ৷ নতুন কৃষি আইন নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে।কৃষকদের লং মার্চ। বিক্ষোভের ঝড়ের মধ্যে শনিবার সুর নরম করে কেন্দ্র। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানান, বিক্ষোভরত কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি কেন্দ্র। ৩ ডিসেম্বর কৃষকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমরও। তবে অমিত শাহের শর্ত, আগে কৃষকদের বিক্ষোভ থামাতে হবে। কৃষকরা অবশ্য সেই শর্তে রাজি কি না তা জানা যায়নি। কৃষকরা প্রশ্ন তুলছেন, সরকার তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি থাকলে কেনই বা নভদীপদের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের হল? প্রধানমন্ত্রীর বার্তার পর ঝড় থামে কি না, সেদিকেই তাকিয়ে দেশ।

    Published by:Elina Datta
    First published: