• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু এমনকী করোনার সঙ্গে লড়ে এখন সাপের কামড়ে হাসপাতালে ভর্তি এই ব্যক্তি!

ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু এমনকী করোনার সঙ্গে লড়ে এখন সাপের কামড়ে হাসপাতালে ভর্তি এই ব্যক্তি!

তাঁর পুত্র আরও বলেছেন যে, করোনা অতিমারীর কারণে তাঁর বাবা ভারতে আটকে রয়েছেন৷

তাঁর পুত্র আরও বলেছেন যে, করোনা অতিমারীর কারণে তাঁর বাবা ভারতে আটকে রয়েছেন৷

তাঁর পুত্র আরও বলেছেন যে, করোনা অতিমারীর কারণে তাঁর বাবা ভারতে আটকে রয়েছেন৷

  • Share this:

    ম#জয়পুর:  এটি এমন এক ব্যক্তির গল্প, যিনি ব্রিটেন থেকে ভারতে এসেছিলেন এবং মানুষের সেবা করতে৷ কিন্তু তার সঙ্গে যা ঘটল, তা শুনে আপনি চমকে উঠবেন৷ রাজস্থানে আটকা পড়া এই ব্যক্তি একবার নয়, তিনবার জীবন ও মৃত্যুর মুখোমুখি হয়েছিলেন। তিনি প্রথমে মারাত্মক ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন৷ তার পরে করোনভাইরাসে আক্রান্ত হন এবং এখন সাপের কামড়ের ফলে তাঁর হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে৷

    এই ব্যক্তির নাম ইয়ান জনস৷ সম্প্রতি তাঁকে জয়পুর থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরের একটি শহরে একটি বিষাক্ত কোবরা কামড়েছিল। এখন যোধপুরে তাঁর চিকিৎসা চলছে। তাঁকে যিনি চিকিৎসা করছেন সেই ডাক্তারবাবু অভিষেক টেটার বলেছেন, 'তিনি গত সপ্তাহে এখানে এসেছিলেন। তাঁকে একটি গ্রামে একটি সাপ কামড়েছিল। প্রথমদিকে, আমরা অনুভব করেছি যে তিনি আবার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন৷ তবে তাঁর রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে যা স্বস্তির বিষয়। আমরা তাদের মধ্যে সাপের কামড়ের লক্ষণ পেয়েছি। জনস চোখে পরিষ্কার দেখতে পাচ্ছে না, হাঁটাচলা করতেও সমস্যা হচ্ছে।

    চিকিৎসকদের মতে, গত সপ্তাহে জনকে ডিসচার্জ করা হয়েছিল। GoFundMe ওয়েবসাইটে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে তাঁর ছেলে বলেছিলেন যে তার বাবা একজন যোদ্ধা। তিনি বলেছিলেন, 'ভারতে থাকাকালীন প্রথম তাঁর ম্যালেরিয়া জ্বর হয়েছিল। এর পরে তিনি ডেঙ্গু আক্রান্ত হন। ডেঙ্গু থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরে আবার তাঁর ম্যালেরিয়ায় হয়। এর পরে, তিনি করোনার পজিটিভ হন এবং এখন তাঁকে বিষাক্ত কোবার কামড় দিয়েছে৷

    জনস পুত্র আরও বলেছেন যে, করোনা অতিমারীর কারণে তাঁর বাবা ভারতে আটকে রয়েছেন। তিনি ব্রিটেনে ফিরে আসতে পারছে না। তবে তাঁর ছেলে গর্ববোধ করেছেন এই বলে যে, ভারতে থেকে তাঁর বাবা অন্যদের সাহায্য করছেন। জনস রাজস্থানের ঐতিহ্যবাহী কারিগরদের সাথে কাজ করেন।

    Published by:Pooja Basu
    First published: