Home /News /national /
জুটল না খাবার, খিদের জ্বালায় ছটফট করে রাস্তায়ই মৃত্যু ৬০ বছরের পরিযায়ী শ্রমিকের

জুটল না খাবার, খিদের জ্বালায় ছটফট করে রাস্তায়ই মৃত্যু ৬০ বছরের পরিযায়ী শ্রমিকের

পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্দশা নিয়ে নোটিশ পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট৷ PHOTO- FILE

পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্দশা নিয়ে নোটিশ পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট৷ PHOTO- FILE

যোগীরাজ্যে ৬০ বছরের পরিযায়ী শ্রমিক খিদের জ্বালা সহ্য করতে না পেরে প্রাণ হারালেন

  • Share this:

    #লখনৌ: হাজার হাজার কিলোমিটার পথ হাঁটছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা৷ গন্তব্য নিজের রাজ্য, নিজের বাড়ি৷ প্রথম দফার লকডাউন শুরু হওয়ার পর থেকেই লক্ষ লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিক পথে নেমেছেন। সমস্তরকম যান চলাচল ছিল বন্ধ, পায়ে হেঁটেই মাইলের পর মাইল পথ পাড়ি দিয়ে কেউ বাড়ি পৌঁছেছিলেন, কারও মৃত্যু হয়েছিল রাস্তাতেই।

    লকডাউনের সবথেকে খারাপ প্রভাব যদি কারও জীবনে পড়ে থাকে, তবে তা পরিযায়ী শ্রমিকদের উপরেই ৷ ১৬-মের তথ্য অনুযায়ী গত দশ দিনে দুর্ঘটনায় অন্তত ১০৪ জন পরিযায়ী শ্রমিক প্রাণ হারিয়েছেন, আহতের সংখ্যাও ১০০ ছুঁই ছুঁই ৷ উত্তরপ্রদেশের ভয়াবহ দুর্ঘটনার রেশ এখন কাটেনি, তার মধ্যেই রবিবার মধ্যপ্রদেশে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় ৪ পরিযায়ী শ্রমিকের। এবার যোগীরাজ্যে ৬০ বছরের পরিযায়ী শ্রমিক খিদের জ্বালা সহ্য করতে না পেরে প্রাণ হারালেন।

    পুলিশ সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার ১৪ মে মহারাষ্ট্র থেকে পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে নিয়ে উত্তরপ্রদেশে নিজের বাড়ির দিকে হাঁটা শুরু করেছিলেন বিক্রম নামে ওই শ্রমিক। পেটে কোনও খাবার ছিল না বললেই চলে! শেষ পেটভর্তি খাবার খেয়েছিলেন শুক্রবার।

    জানা যায়, প্রায় ১২০ কিলোমিটার অতিক্রম করে কনৌজ পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু বাড়ি ফেরা আর হল না। এদিন বেলা ৩টে নাগাদ যখন হারদোই জেলায় নিজের গ্রামের দিকে হাঁটা লাগিয়েছেন, আর পারলেন না বিক্রম। পেট খালি, খিদের অসহ্য জ্বালায় মাঝরাস্তাতেই পড়ে যান।

    পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, 'প্রাথমিক তদন্তে মনে করা হচ্ছে না খেয়েই মৃত্যু হয়েছে বৃদ্ধের। পেটভরে শেষবার তিনি খেয়েছিলেন শুক্রবার। তার পর থেকে শুধু সামান্য বিস্কুট ও জল খেয়েছেন।'

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    Tags: Migrant Dies Of Hunger In UP

    পরবর্তী খবর