Home /News /national /

Covid 19: করোনায় মৃত্যুর ১৫ মাস পরে হাসপাতাল থেকে উদ্ধার পচাগলা দেহ, কোন রাজ্যে ঘটেছে এই ঘটনা?

Covid 19: করোনায় মৃত্যুর ১৫ মাস পরে হাসপাতাল থেকে উদ্ধার পচাগলা দেহ, কোন রাজ্যে ঘটেছে এই ঘটনা?

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Rotting Body Recovered from Bengaluru Hospital: গত শুক্রবার এই দু’জনের পচাগলা দেহ উদ্ধার করা হয় বেঙ্গালুরু ইএসআই হাসপাতাল (ESI Hospital) থেকে।

  • Share this:

    #বেঙ্গালুরু: বেঙ্গালুরুর (Bengaluru) একটি হাসপাতালের মর্গ থেকে উদ্ধার হল দু’জন করোনা (Covid 19) আক্রান্তের পচাগলা মৃতদেহ। মৃত্যুর ১৫ মাস পরে এই দেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন। গত ২৬ নভেম্বর অর্থাৎ শেষ শুক্রবার এই দেহ উদ্ধার করা হয়। প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, উদ্ধার হওয়া দেহগুলির মধ্যে একটি দুর্গা (৪০) নামে একজনের, অন্য জনের নাম মণিরাজু (৩৫)।

    গত শুক্রবার এই দু’জনের পচাগলা দেহ উদ্ধার করা হয় বেঙ্গালুরু ইএসআই হাসপাতাল (ESI Hospital) থেকে। গত বছর, অর্থাৎ ২০২০ সালের জুলাই মাসে এঁরা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। সেই সময়েই তাঁদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়। কয়েকদিনের মধ্যে তাঁদের মৃত্যু হলে হাসপাতালের পুরনো ভবনের একটি মর্গে নিয়ে যাওয়া হয় দু’জনের দেহ। দেহগুলি বেঙ্গালুরু মহানগরপালিকা-এর (Bengaluru Mahanagarpalika) হাতে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। পুর প্রশাসন শেষকৃত্য করবে বলে জানিয়েছিল। কিন্তু সে কাজ আর হয়নি।

    আরও পড়ুন: ওমিক্রনে আক্রান্ত বুঝবেন কী ভাবে? দক্ষিণ আফ্রিকার চিকিৎসক বললেন উপসর্গ

    এর পর এই বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে একটি নতুন মর্গ তৈরি করে সরকার। সংবাদ সংস্থার তরফে খবর, যখন থেকে নতুন মর্গটি কাজ করতে শুরু করে, তখন থেকে পুরনো মর্গে পড়ে থাকা দেহর কথা কার্যত ভুলেই যায় কর্তৃপক্ষ। সেই কারণেই এত দিন দেহ পড়েছিল। শুক্রবার পুরনো মর্গ পরিষ্কার করতে গিয়েছিলেন কয়েকজন কর্মী। তাঁরা মর্গের ভিতর থেকে হঠাৎ পচা গন্ধ পেতে শুরু করে। তার পরেই উদ্ধার হয় দেহ। পরে দেহ তুলে দেওয়া হয় রাজাজিনগর পুলিশের হাতে। পুলিশ মৃতদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চালাচ্ছে।

    আরও পড়ুন:  পরীক্ষা কম হওয়া সত্ত্বেও বাড়ছে করোনা সংক্রমণের হার, উদ্বেগে চিকিৎসকরা

    এই নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিজেপি বিধায়ক ও প্রাক্তন মন্ত্রী এস সুরেশ কুমার চিঠি লিখেছেন কর্নাটক শ্রম দপ্তরে। যাঁরা এই ধরনের ঘটনার সঙ্গে যুক্ত তাঁদের কঠোর শাস্তির দাবি করেছেন তিনি। বলেছেন, অমানবিক এই ঘটনার সঙ্গে যাঁরা জড়িত তাঁদের অবিলম্বে কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত। তিনি লিখেছেন, ‘বেঙ্গালুরু মহানগর পালিকা ও ইএসআই হাসপাতালে যে কর্মী ও পরিচালকদের উদাসীনতার জন্য আজ এই ঘটনা ঘটেছে, তাঁদের বিরুদ্ধে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত করা প্রয়োজন। চিহ্নিত করা উচিত, কারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত। তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিক প্রশাসন’।

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: Bengaluru, Coronavirus, Covid ১৯

    পরবর্তী খবর