corona virus btn
corona virus btn
Loading

পরীক্ষায় 'না' বলায় অধ্যাপককে জাত তুলে অশ্লীল অপমান! গর্জে উঠছে বাংলার শিক্ষকমহল

পরীক্ষায় 'না' বলায় অধ্যাপককে জাত তুলে অশ্লীল অপমান! গর্জে উঠছে বাংলার শিক্ষকমহল
অধ্যাপক মেরুনা মুর্মু।

ঘটনার শুরুয়াত গত ২সেপ্টেম্বর। ওইদিন ইতিহাসের অধ্যাপক মেরুনা ফেসবুকে ব্যক্তিগত মত প্রকাশ করেন পরীক্ষা নিয়ে। বন্ধু নীলকণ্ঠ নস্করের এক পোস্টে মেরুনার মত ছিল, এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষার জমায়েত বুমেরাং হতে পারে।

  • Share this:

#কলকাতা: জাত তুলে আক্রমণের ঘটনায় ক্রমেই হাত শক্ত হচ্ছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপিকা মেরুনা মুর্মুর। বেথুন কলেজ অভিযুক্ত ছাত্রীকে ভৰ্ৎসনা করেছে ইতিমধ্যেই। পাশাপাশি মেরুনা পাশে পেয়েছেন যাদবপুর ইউনিভার্সিটি টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন, অল বেঙ্গল ইউনিভার্সিটি টিচার্স অ্যাসোশিয়েশনকে।

ঘটনার শুরুয়াত গত ২সেপ্টেম্বর। ওইদিন ইতিহাসের অধ্যাপক মেরুনা ফেসবুকে ব্যক্তিগত মত প্রকাশ করেন পরীক্ষা নিয়ে। বন্ধু নীলকণ্ঠ নস্করের এক পোস্টে মেরুনার মত ছিল, এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষার জমায়েত বুমেরাং হতে পারে। আসরে নামে পারমিতা ঘোষ নামে বেথুন কলেজের এক ছাত্রী। মেরুনার ওয়ালে গিয়ে সে জানিয়ে আসে তার মত। তার বক্তব্য, মেরুনা অযোগ্য, বসে বসে মাইনে পাচ্ছেন। তিনি লেখেন, "এ ধরনের ভাবনাচিন্তা যারা কোটা সংরক্ষণ নি.এ ভাবেন তাদের মাথা থেকেই আসতে পারে।" তিনি আরও লেখেন, "মেরুনা মুর্মু আদিবাসী হওয়ায় পড়াশোনা, চাকরিবাকরির ক্ষেত্রে সুবিধে লাভ করেছেন।" নিজের ওয়ালে তাকে লিখতে দেখা যায়, "আজ এক মুর্মুকে ভদ্রভাবে তার সাওতাল পরিচয়ের কথা মনে করিয়ে দেওযা হয়েছে। "

মেরুনার পক্ষে এরপর গর্জে ওঠে নাগরিক সমাজ। বহু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীরা। শিক্ষক সমাজের একাংশ তাঁর পক্ষে বিবৃতিতে স্বাক্ষর করে।

ইতিহাসচর্চায় এই মুহূর্তে বাংলায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নাম মেরুনা মুর্মু। জাতবৈষম্যের বিরুদ্ধে তাঁর লেখালেখি গোটা দেশেই শিক্ষামহলের প্রশংসা কুড়িয়েছে। আদিবাসী-দলিত অনগ্রসর সমাজের বিরুদ্ধে হওয়া অন্যায় নিয়েও সরব মেরুনা।তাঁর পক্ষে লেখা শিক্ষকমহলের বিবৃতিতে জানান দেওযা হয়েছে, "বাংলায় জাতবিষয়ক প্রশ্নগুলিকে নতুন আলোয় দেখার সুযোগ করে দিয়েছে মেরুনার উপস্থিতি এবং লেখালেখি। এটি সর্বাত্মকভাবে প্রথাভাঙা।"

বর্তমান ভারতের আদিবাসী ও দলিত সমাজের ক্ষমতায়নের প্রধানমুখ মেরুনা মুর্মুর বিরুদ্ধে এই আক্রমণ অত্যন্ত নিন্দনীয়। প্রান্তবাসী মানুষের প্রতি ঘৃণায় এ ভাবে জাত তুলে অপমান সমাজের ব্রাহ্মণ্যবাদী রূপটি আরও একবার তুলে ধরে।

Published by: Arka Deb
First published: September 9, 2020, 8:33 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर