Home /News /national /
Abhishek Banerjee: বাংলায় ওদের ল্যাজেগোবরে করেছি, এখানেও করব, ত্রিপুরার সভায় বিজেপিকে হুঁশিয়ারি অভিষেকের

Abhishek Banerjee: বাংলায় ওদের ল্যাজেগোবরে করেছি, এখানেও করব, ত্রিপুরার সভায় বিজেপিকে হুঁশিয়ারি অভিষেকের

ত্রিপুরার সভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

ত্রিপুরার সভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

Abhishek Banerjee: ত্রিপুরার উন্নয়নের প্রশ্নে অভিষেক বলেন, কেন ত্রিপুরায় ঘরে ঘরে জল পাবে না? কেন স্বাস্থ্য কেন্দ্র হবে না? কেন কৃষক বাজার হবে না? কেন পলিটেকনিক হবে না? বাংলায় লক্ষ্মীর ভান্ডার চালু করেছি।

  • Share this:

#কলকাতা: ত্রিপুরার প্রচার পর্বের শেষ লগ্নে এসে কার্যত বিজেপিকে উপড়ে ফেলার হুঁশিয়ারি দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের প্রচার সভা থেকে তিনি বললেন, "শেষ প্রচার পর্ব করতে এসেছি৷ ভোট দেওয়ার আগে ৩০ সেকেন্ড চোখ বন্ধ করে চিন্তা করবেন, ২০১৮ সাল থেকে ওরা ভাঁওতাবাজি করে চলেছে। রাজ্যের পরিস্থিতি কী দেখুন। ১০০ মিটার রাস্তা যথাযথ ভাবে করতে পারেনি৷ পরিকাঠামো ব্যবস্থা বেহাল। স্বাস্থ্য, শিক্ষা নেই৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দফতরের তথ্য পরিসংখ্যান বলছে বেকারত্ব, সন্ত্রাসের হার সবচেয়ে বেশি। তৃণমূল কংগ্রেস পা রাখার সঙ্গে সঙ্গে বুঝে গেছে ওদের পায়ের তলায় মাটি সরে গেছে। ধমকে চমকে, ইডি-সিবিআই দেখালে আমরা বসে যাব না। আমাদের আন্দোলন আরও তীব্রতর হবে। সুরমাতে দু'দিন আগে ব্রজবাবু-সহ কয়েকজনকে মারধর করেছে। এদের দোষ এরা তৃণমূল কংগ্রেসকে সমর্থন করেছেন। চার বছর ক্ষমতায় থেকে বিজেপি এখানে কোনও উন্নয়ন করেনি। এরা উন্নয়ন আসলে চায় না।

আরও পড়ুন: "দেশের যুবাদের উদ্যম বিজেপি অফিস রক্ষার জন্য নয়...", কৈলাশের মন্তব্যে মোদি-বিজেপিকে খোঁচা রাহুলের

ত্রিপুরার উন্নয়নের প্রশ্নে অভিষেক বলেন, কেন ত্রিপুরায় ঘরে ঘরে জল পাবে না? কেন স্বাস্থ্য কেন্দ্র হবে না? কেন কৃষক বাজার হবে না? কেন পলিটেকনিক হবে না? বাংলায় লক্ষ্মীর ভান্ডার চালু করেছি। এখানেও আমরা চালু করতে চাই। চাই এখানেও কন্যাশ্রী, যুবশ্রী চালু করতে। বাংলা করে দেখিয়েছে, ত্রিপুরাও করে দেখাবে। আমাদের কর্মীদের ওপর মারধর করা হচ্ছে কারণ ওরা ভয় পেয়েছে৷ বাংলায় আমরা দিল্লির কাছে মেরুদণ্ড বিক্রি করিনি। আপনারাও মেরুদণ্ড বিক্রি করবেন না। দিল্লির রিমোট কন্ট্রোল সরকার চান? নাকি ভোটাধিকার প্রয়োগ করে নিজেদের প্রত্যাশা পূরণ চান। ভোট দিন মাথা উঁচু করে, তৃণমূল কংগ্রেস মাথা নীচু করে কাজ করবে। আমাদের প্রার্থীকে ভোট দেওয়া মানে সরাসরি মমতা বন্দোপাধ্যায়কে ভোট দেওয়া। কংগ্রেস, সিপিএমকে ভোট দেবেন না। এদের ভোট দিলে, এরা আপনাদের ভোট নিয়ে দিল্লিতে গিয়ে ব্যবসা করবে।

আরও পড়ুন: অগ্নিপথের বিরোধিতায় আজ ভারত বনধ! কড়া নিরাপত্তা বিহার সহ বহু রাজ্যে, সতর্ক নবান্নও

বিজেপিকে অভিষেকের হুঁশিয়ারি, বাংলায় ওদের ল্যাজেগোবরে করেছি। এখানেও করব। আজ সুরমায় খুঁটি পুজো করলাম। ২০২৩ সালে বিসর্জন দেব। আমরা এখানে পা রাখার পরে বিরোধীরা বেরোতে শুরু করেছে। কারণ বিরোধিতা কাকে বলে সেটা আমরা দেখিয়ে দিয়েছি। আজ ত্রিপুরা,সুরমা যা ভাবছে আগামীকাল দেশ তা ভাববে এটা আপনাদের প্রমাণ করতে হবে। যে পাড়ায় গ্রামে, বুথে ডাকবেন, আমি আসব। আপনাদের হাত শক্তিশালী করব। কিন্তু এক ছটাক জমিও ছাড়ব না। মানুষ যাতে বুথমুখী না হতে পারে সেটা করার চেষ্টা করছে বিজেপি। কিন্তু আপনারা নিজেদের ভোট দেবেন। বাংলা পারলে, ত্রিপুরাও পারবে।

আবীর ঘোষাল

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Abhishek Banerjee

পরবর্তী খবর