• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • অবশেষে পাঁচদিন ধরে চলা বনধ প্রত্যাহার করল স্যানিটেশন কর্মীরা

অবশেষে পাঁচদিন ধরে চলা বনধ প্রত্যাহার করল স্যানিটেশন কর্মীরা

বেতন না পাওয়ায় তার প্রতিবাদ জানাতে বনধ ডেকেছিল দিল্লির স্যানিটেশন কর্মীদর একাংশ ৷ পাঁচদিন ধরে চলা এই বনধের জেরে হয়রানির মুখ্য পড়তে হয়েছে দিল্লিবাসীকে ৷

বেতন না পাওয়ায় তার প্রতিবাদ জানাতে বনধ ডেকেছিল দিল্লির স্যানিটেশন কর্মীদর একাংশ ৷ পাঁচদিন ধরে চলা এই বনধের জেরে হয়রানির মুখ্য পড়তে হয়েছে দিল্লিবাসীকে ৷

বেতন না পাওয়ায় তার প্রতিবাদ জানাতে বনধ ডেকেছিল দিল্লির স্যানিটেশন কর্মীদর একাংশ ৷ পাঁচদিন ধরে চলা এই বনধের জেরে হয়রানির মুখ্য পড়তে হয়েছে দিল্লিবাসীকে ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বেতন না পাওয়ায় তার প্রতিবাদ জানাতে বনধ ডেকেছিল দিল্লির স্যানিটেশন কর্মীদর একাংশ ৷ পাঁচদিন ধরে চলা এই বনধের জেরে স্বভাবতই হয়রানির মুখ্য পড়তে হয়েছে দিল্লিবাসীকে ৷ এর জেরে রাস্তার চারিদিকে জমা হতে দেখা গিয়েছে আবর্জনার স্তুপ ৷ ভ্যাট উপচে আবর্জনা এসে পড়ছে রাস্তায়। দুর্গন্ধে পথ চলাই দায়। কিন্তু, কোন উপায় ছিল না ৷

    কিন্তু সোমবার কিছুটা স্বস্তির বার্তা নিয়ে এল দিল্লিবাসীর জন্য ৷ রাতে পাঁচদিন ধরে চলা এই বনধ প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছেন স্যানিটেশন কর্মীরা ৷ দু’মাসের বেতন পাওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে স্যানিটেশন কর্মীদের তরফে ৷ এর ফলে কিছুটা হলে স্বস্থি পেয়েছেন দিল্লিবাসীরা ৷ দিনের পর দিন এইভাবে আর্বজনা রাস্তায় পড়ে রয়েছে ৷ এর থেকে বিভিন্ন রকমের সংক্রামন বা রোগ ছড়ানোর সম্ভাবনা অনেকটাই বেশি ৷  দুর্গন্ধ ও মাশা-মাছির উপদ্রবে টেকা দায় হয়ে পড়ছে বলেও অভিযোগ শহরের বাসিন্দাদের একাংশের।  শুধু তাই নয় কুকুর, বেড়াল আবর্জনা মুখে করে দূষণ ছড়াচ্ছে গোটা এলাকায়। কিন্তু বনধের কারণে গত কয়েকদিন ময়লার গাড়ির দেখা মেলেনি ৷

    সোমবার সাফাই কর্মীদের ইউনিয়ন আলোচনায় বসে পূর্ব দিল্লি মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের আধিকারিকদের সঙ্গে। দিল্লির শাসকদল মজুরি বাবদ ধার্য করা টাকা দিলেও তা ঠিক সময়ে সাফাই কর্মীদের হাতে পৌঁছচ্ছিল না। তার উপর সঠিক মজুরিও তাঁরা পাচ্ছিলেন না।

    আধিকারিক জানিয়েছেন, ইউনিয়নের সদস্যরা বনধ প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ৷ শহরের আবর্জনা খুব শীঘ্রই পরিষ্কার করা হবে ৷ আবর্জনা তুলে ডাম্পিং গ্রাউন্ডে নিয়ে যাওয়ার কাজ শুরু হবে ৷ তবে স্যানিটেশন কর্মীদের ইউনিয়নের তরফে জানানো হয়েছে  সদস্যদের মঙ্গলবার একটি বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে৷ তাতেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বনধ নিয়ে ৷

    এর আগে সোমবার মণিশ সিসোডিয়া জানান যে স্যানিটেশন কর্মীদের বেতন দেওয়ার জন্য (EDMC)-কে  ১১৯ কোটি টাকা পাঠানো হয়েছে ৷ এমনকী তিনি ট্যুইটারে জানান যে আপ সরকার অন্য যে কোনও সরকারের থেকে অনেক বেশিঅঙ্কের টাকা দিল্লির (MCD)-কে দিয়েছে ৷

    যদিও প্রথমে বলা হয় যে সোমবার রাত থেকে স্যানিটেশন কর্মীরা কাজে যোগ দেবেন পরে তারা জানান যে মঙ্গলবার বৈঠকের পর সমস্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে ৷

    First published: