ভারতকে স্বচ্ছ বানাতে প্রচারে নামলেন স্বয়ং বাপু

ওড়িশার পথে ঘাটে স্বচ্ছ ভারতের প্রচার চালাচ্ছেন স্বয়ং গান্ধিজী। পরনে সাদা ধুতি, চোখে চশমা আর হাতে লাঠি।

ওড়িশার পথে ঘাটে স্বচ্ছ ভারতের প্রচার চালাচ্ছেন স্বয়ং গান্ধিজী। পরনে সাদা ধুতি, চোখে চশমা আর হাতে লাঠি।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #ভুবনেশ্বর: ওড়িশার পথে ঘাটে স্বচ্ছ ভারতের প্রচার চালাচ্ছেন স্বয়ং গান্ধিজী। পরনে সাদা ধুতি, চোখে চশমা আর হাতে লাঠি। গ্রামের পর গ্রাম, শহরের পর শহর, প্রধানমন্ত্রীর CLEAN INDIA গড়ার স্বপ্নকে সত্যি করতে চলছে জোরদার প্রচার। তবে ইনি মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধি নন। তাহলে কে?

    লাগে রহো মুন্নাভাইয়ের কথা মনে আছে? যেখানে সঞ্জয় দত্ত, মানে মুন্নাভাইকে মাঝেমধ্যেই দেখা দিতেন মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধি।

    অহিংস পথেও যে, যেকোনও সমস্যার সমাধান হতে পারে, সেই পাঠই গোটা সিনেমায় দিতে দেখা গিয়েছিল সেলুলয়েডের বাপুকে। এবার বাস্তবে দেখা দিলেন বাপু।

    ওড়িশার ভূবনেশ্বরে স্বচ্ছ ভারতের পাঠ দিতে পথে নেমেছেন স্বয়ং গান্ধিজী। ওড়িশার বিভিন্ন গ্রাম-শহরে ঘুরে ঘুরে  স্বচ্ছ ভারতের পাঠ দিচ্ছেন বাপু।

    vlcsnap-2016-06-29-18h30m55s553

    বাচ্চা থেকে বুড়ো, সবাইকে ধরে ধরে শেখাচ্ছেন কীভাবে এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

    প্রধানমন্ত্রীর স্বচ্ছ ভারত মিশনকে সাধারণ মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দিতেই এই প্রয়াস ওড়িশার সাইরামের। যাত্রা শুরু করেছেন পুরীর জগন্নাথ মন্দির দিয়ে।

    ওড়িশার গ্রামে-শহরে তো বটেই, স্বচ্ছতার প্রচারে দেশের প্রতিটি কোণেই পৌঁছে যেতে চান সাইরাম।

    আট থেকে আশি, নতুন এই গান্ধিকে দেখে খুশি সকলেই। আর সেই সুযোগে সাইরামও জোরকদমে চালিয়ে যাচ্ছেন স্বচ্ছ ভারতের প্রচার। সকাল থেকে শুরু করে সারাদিন, গ্রামের পর গ্রাম।,খালি পায়ে, লাঠি হাতে, হেঁটে হেঁটে প্রচার সারছেন। কে বলতে পারে, আগামীদিনে হয়ত আপনার এলাকাতেও দেখা পেয়ে যেতে পারেন নতুন এই গান্ধির।

    First published: