ওড়িশায় ৫০০ বছরের পুরনো গোপীনাথ দেবের মন্দির ভেসে উঠল মহানদীর নীচ থেকে!

ছবি- সংগৃহীত ।

প্রাচীনকালে ওই এলাকা সাতপাটানা নামে খ্যাত ছিল । মহানদীর গতিপথ পরিবর্তন হওয়ায় গোটা অঞ্চল নদীগর্ভে চলে যায় ।

  • Share this:

    #কটক: মহানদীর নীচ থেকে ভেসে উঠল বহু প্রাচীন গোপীনাথ দেবের মন্দিরের চূড়া । ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ট্রাস্ট ফর আর্ট অ্যান্ড কালচারাল হেরিটেজ (INTACH) আর্কিয়োলজিক্যাল সার্ভে টিম ১১ বছর ধরে কঠোর অনুসন্ধান চালিয়ে অবশেষে খোঁজ পেল ৫০০ বছরের পুরনো এই মন্দিরের। ওড়িশার নয়াগড় জেলার পদ্মাবতী গ্রামের কাছে মহানদীর নীচে এই প্রাচীন মন্দিরের চূড়ার দেখা মেলে হঠাৎই। গরমে নদীর জল কমে যাওয়ায় প্রত্নতাত্ত্বিকরা বুঝতে পারেন ওই এলাকায় কিছু একটা রয়েছে। INTACH-এর প্রজেক্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট দীপক কুমার নায়েক জানান, এরপর আরও ব্যাপক অনুসন্ধান চালানো হয় গোটা মহানদী জুড়ে । তখনই সন্ধান মেলে এই মন্দিরের। প্রাচীন এই মন্দিরের অবস্থান নির্ণয় করতে নায়েককে সহযোগিতা করেন স্থানীয় প্রত্নতত্ত্বে উত্‍‌সাহী রবীন্দ্র রানা নামে এক ব্যক্তি।

    INTACH-এর সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রাচীনকালে ওই এলাকা সাতপাটানা নামে খ্যাত ছিল। মহানদীর গতিপথ পরিবর্তন হওয়ায় গোটা অঞ্চল নদীগর্ভে চলে যায়। সে সময় গোপীনাথ দেবের এই মন্দিরটিও ভেসে যাওয়ার উপক্রম হয়। তখন এই গর্ভগৃহ থেকে দেবতাকে বের করে এনে তাঁকে অন্য একটি মন্দির তৈরি করে সেখানে পুনঃস্থাপিত করা হয়। এলাকায় এখনও ওই গোপীনাথের মন্দিরটি রয়েছে।

    Published by:Simli Raha
    First published: