মহিলারা সুখী হন কিসে ? জানতে RRS-এর সমীক্ষা, সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

শতাব্দী প্রাচীন এই কঠিন প্রশ্নের উত্তরের খোঁজে RSS ৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 24, 2019 05:11 PM IST
মহিলারা সুখী হন কিসে ? জানতে RRS-এর সমীক্ষা, সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 24, 2019 05:11 PM IST

#নয়াদিল্লি: শতাব্দী প্রাচীন এই কঠিন প্রশ্নের উত্তরের খোঁজে RSS ৷ মহিলাদের সুখের কারণ নিয়ে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের অভিনব সমীক্ষা ৷ সামনে এল চাঞ্চল্যকর একাধিক তথ্য বা উত্তর ৷

মহিলাদের খুশির কারণ খুঁজতে শুধুমাত্র ভারতীয় মহিলাদের উপরই সমীক্ষা চালিয়েছে আরএসএস ৷ সমীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী, ‘সুখী’ ভারতীয় মহিলাদের ৯০ শতাংশই হল সাধ্বী অর্থাৎ যারা ভোগের জীবন ত্যাগ করে সাত্ত্বিক জীবন পালন করছে এবং পরিবারের থেকে দূরে রয়েছেন ৷ এছাড়া এই ৯০ শতাংশ মহিলার কোনও নির্দিষ্ট আয় নেই ৷ সার্ভে বলছে এরাই সবথেকে খুশি ৷

এখানেই শেষ নয়, আরএসএস-এর করা সমীক্ষা অনুযায়ী লিভ-ইন সম্পর্কের থেকে বিবাহিত সম্পর্কেই বেশি সুখী ও খুশি থাকেন ভারতীয় মহিলারা ৷ মঙ্গলবার দিল্লিতে এই রিপোর্ট প্রকাশ করেন সঙ্ঘ প্রধান মোহন ভাগবত ৷

দেশের ২৯টি রাজ্য ও পাঁচটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল এবং ৪৬৫টি জেলার, ১৮ বছরের উর্ধ্বে ৪৩,২৫৫ জন মহিলার সঙ্গে কথা বলে তৈরি করা হয়েছে এই রিপোর্ট ৷ পুনের এক রিসার্চ সেন্টার দৃষ্টি স্ত্রী অধ্যায়ন প্রবোধন কেন্দ্রের মাধ্যমে ২০১৭-১৮ সালে সঙ্ঘের বিভিন্ন রিসার্চ টিম এই সমীক্ষাটি করেন ৷ এই সমীক্ষায় শিক্ষা, চাকরি, স্বাস্থ্য এবং পুষ্টির মতো প্যারামিটার ছিল ৷

রিপোর্ট অনুযায়ী, জীবনে খুশি বা খুব খুশি মহিলারা অধিকাংশই আধ্মাত্যবাদের সঙ্গে যুক্ত ৷ সমীক্ষায় অংশ নেওয়া সুখী হিসেবে স্বীকৃত ৯০ শতাংশ মহিলাদের কোনও আয় নেই, এমনকী আপন বলতে কোনও পরিবারও নেই ৷ অন্যদিকে, যাদের পারিবারিক আয় ১০ হাজারের নীচে এমন মহিলারা সবচেয়ে কম সুখী ৷

Loading...

সমীক্ষায় অংশ নেওয়া এক-তৃতীয়াংশ মহিলারাই আলাদা করে কোনও নিজেদের আগ্রহের জায়গা বলতে পারেননি ৷ এতেই স্পষ্ট সংসারের কাজ ও দায়িত্বপালসনের চাপে কিভাবে মহিলারা নিজেদের স্বকীয়তা ভুলতে বসেছেন ৷ এক-চতুর্থাংশেরও বেশি মহিলারা জানিয়েছেন, তারা বিশ্রামের জন্য কোনও সময়ই পান না ৷ এই সমীক্ষার প্রায় সব মহিলাই বিবাহিত বা কোনও সম্পর্কে আছেন ৷ মাত্র ২১.৯৬ শতাংশ মহিলারাই সিঙ্গেল ৷ এদের বয়স ১৮-২৫ বছরের মধ্যে ৷

First published: 05:10:14 PM Sep 24, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर