corona virus btn
corona virus btn
Loading

বাড়ির দরজায় মদ্যপের তাণ্ডব, প্রতিবাদ করে হেনস্থার শিকার ৮৬ বছরের বৃদ্ধ

বাড়ির দরজায় মদ্যপের তাণ্ডব, প্রতিবাদ করে হেনস্থার শিকার ৮৬ বছরের বৃদ্ধ
পর্ণশ্রীর সেই দম্পতি।

রাত্রি বারোটা -একটা পর্যন্ত চলে সেই তাণ্ডব গতকাল রাতে তারই প্রতিবাদ করতে গিয়ে সপরিবারে আক্রান্ত হলেন এক বৃদ্ধ।

  • Share this:

#কলকাতা: প্রতিদিন  মদ্যপর চিৎকারে অতিষ্ঠ প্রাণ। দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে একই ঘটনা। বারণ করলে শোনা তো দূরের কথা, আরও বেড়ে যায় চিৎকার। রাত্রি বারোটা -একটা পর্যন্ত চলে সেই তাণ্ডব গতকাল রাতে তারই প্রতিবাদ করতে গিয়ে সপরিবারে আক্রান্ত হলেন এক বৃদ্ধ।

প্রলয়কান্তি সরকারের ৮৬ বছর বয়স। স্ত্রী ইলা সরকার বয়স ৮০ বছর। মলয়বাবু প্রোস্টেটের সমস্যায় ভুগছেন। এছাড়াও আরও শারীরিক ব্যাধি রয়েছে তাঁর। সব সময় ক্যাথিডার লাগিয়ে রাখতে হয়।সন্ধ্যার পরে প্রতিদিন ঘুমের ওষুধ খেয়ে ঘুমোতে যান প্রলয়বাবু। ইলা দেবীও তাই। এদিকে ছেলে প্রবাল, এই করোনা মহামারী পরিস্থিতিতে বেসরকারি চাকরি খুঁইয়েছেন।

সরকারদের বাড়ি রাস্তার পাশে হওয়ার জন্য গাড়িঘোড়ার শব্দবিভ্রাট সহ্য করতে হয় বটে। তবে মদ্যপদের তাণ্ডব মাত্রাছাড়া। গতকাল রাত্রি দশটার পর থেকে বাড়ির পাশে রাস্তার উপরে, দুই মদ্যপ এর মদ খাওয়া এবং চিৎকার চেঁচামেচির প্রতিবাদ করেন ছেলে প্রবাল। এই সময়ে তাঁদেরক রীতিমতো আক্রমণ করে ওই দুই মদ্যপ।দরজায় লাথি মারা থেকে আরম্ভ করে কুৎসিত ভাষায় গালা গালি করা,এমনকি প্রাণে মারার হুমকি দেয়।

প্রবাল থানায় ফোন করার উদ্যোগ নিতেই পালিয়ে যায় ওই দুই দুষ্কৃতী।   প্রথমে থানার দু'টি ফোন নাম্বারে ফোন করে, তাতে না পেয়ে ১০০ নম্বরে ডায়াল করেন প্রবাল। ১৫ মিনিটের মধ্যে পর্ণশ্রী থানার দুই পুলিশ কর্মী মোটরসাইকেলে করে এসে পৌঁছান ওখানে। পুলিশও যথেষ্ট হেনস্থা করেছে বলে অভিযোগ সরকার পরিবারের।

তাঁদের কথায়, অসুস্থ বৃদ্ধাকে পর্ণশ্রী থানার পুলিশ রাত্রি ১ টা পর্যন্ত বসিয়ে রেখে দেওয়া হয়।অবশেষে ওই থানার সহৃদয় কর্তাব্যক্তির নজরে এলে তিনি,অভিযোগ নিয়ে,তাড়াতাড়ি ছেড়ে দিতে নির্দেশ দেন।বিষয়টি সংবাদে প্রকাশ হওয়ার পর, পর্নশ্রী থানার পক্ষ থেকে ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক ওই পরিবারের কাছে,তার থানার পুলিশের অনুচিত ব্যবহারের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন। সঙ্গে অপরাধীদের ধরার প্রতিশ্রুতি দেন।  তবে এই শহরে বৃদ্ধ ও বৃদ্ধারা  কতটা সুরক্ষিত তা নিয়ে প্রশ্ন রইলই।

Published by: Arka Deb
First published: September 1, 2020, 2:17 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर