• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • ইঞ্জিন ছাড়াই ট্রেন ছুটল ১৭ কিলোমিটার ! ওড়িশার ঘটনায় চালক-সানটিং কর্মীদের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ

ইঞ্জিন ছাড়াই ট্রেন ছুটল ১৭ কিলোমিটার ! ওড়িশার ঘটনায় চালক-সানটিং কর্মীদের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ

Photo Courtesy: ANI

Photo Courtesy: ANI

ইঞ্জিন ছাড়া ট্রেন ছুটল ১৭ কিলোমিটার, এমন নজিরই নেই। বিপজ্জনক এই ঘটনায় গাফিলতি কার ?

  • Share this:

    #ভুবনেশ্বর: ঢালের জোরে রক্ষা পেল প্রায় এক হাজার যাত্রী-সহ ট্রেন। ওড়িশার তিতলাগড়ের ঘটনায় রেলকেই দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের দাবি, এই ঘটনায় স্পষ্ট কোচের হ্যান্ড ব্রেক আলগা ছিল। দায়িত্ব এড়িয়েছেন চালক-সহ সানটিং কর্মীরাও।

    প্রযুক্তিগত নিয়ম, সামনে থেকে ইঞ্জিন বদলের সময় কোচের হ্যান্ড ব্রেক টেনে দিতে হয়। কারণ, পিছন থেকে ইঞ্জিন যুক্ত হলেও ব্রেকের কোনও প্রভাব পরে না বাকি কোচগুলির উপরে। কিন্তু আহমেদাবাদ-পুরী সুপারফাস্টের ঘটনায় সেই নিয়ম মানা হয়নি । বিশেষজ্ঞদের মতে, কর্মীদের গাফিলতিতেই তিতলাগড়ে ঘটল রেলের ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা। ইঞ্জিন খুলে গিয়েছে এমন নজির প্রচুর। কিন্তু ইঞ্জিন ছাড়া ট্রেন ছুটল ১৭ কিলোমিটার, এমন নজিরই নেই। বিপজ্জনক এই ঘটনায় গাফিলতি কার ?

    বিশেষজ্ঞদের মতে, অবশ্যই চালক এবং সানটিং কর্মীদের। তিতলাগড়ে আহমেদাবাদ-পুরী এক্সপ্রেসের ইঞ্জিন বদলের সময় চালকদের কোচের হ্যান্ড ব্রেক টানা উচিত ছিল। এমনকী, সানটিং কর্মীরা ঠিক মতো ব্রেকের কাজ করেছেন কীনা, তা দেখাও চালক ও সহ-চালকের দায়িত্ব। দু’টি বিষয় এখানে উপেক্ষিত হয়েছে বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের। তাঁদের মতে, কেসিঙ্গার ঢালে আটকে না গেলে বিরাট বড় ক্ষতি হতে পারত।

    আপাতত সাত জন কর্মীকে সাসপেন্ড করেছে রেল। উচ্চপর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে যাই হোক, বিনা ইঞ্জিনে ১৭ কিলোমিটার ছুটে যাত্রী নিরাপত্তায় ভারতীয় রেলের ব্যর্থতাকে ফের বেআব্রু করে দিল আহমেদাবাদ-পুরী সুপারফাস্ট।

    First published: