Coronavirus In Maharashtra: ২৪ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত ৫৮৯৫২, মৃত ২৭৮

Coronavirus In Maharashtra: ২৪ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত ৫৮৯৫২, মৃত ২৭৮

মহারাষ্ট্রে ১১ এপ্রিল ৬৩২৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন যা এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক ৷ স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে জানানো হয়েছে, রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫,৭৮,১৬০ ৷

মহারাষ্ট্রে ১১ এপ্রিল ৬৩২৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন যা এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক ৷ স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে জানানো হয়েছে, রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫,৭৮,১৬০ ৷

  • Share this:

    #মুম্বই: গত ২৪ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৫৮,৯৫২ জন ৷ মৃত্যু হয়েছে ২৭৮ জনের ৷ এর জেরে রাজ্যে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৮,৮০৪ ৷ রাজ্য স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে এই তথ্য জানানো হয়েছে ৷ মহারাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক হওয়ায় রাজ্য সরকারের তরফে নাইট কার্ফুর পাশাপাশি ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে ৷

    মহারাষ্ট্রে ১১ এপ্রিল ৬৩২৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন যা এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক ৷ স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে জানানো হয়েছে, রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫,৭৮,১৬০ ৷ এর মধ্যে ২৯,০৫,৭২১ রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৷

    বর্তমানে ৬,১২,০৭০ জনের চিকিৎসা চলছে ৷ মুম্বইয়ে সংক্রমণের ৯৯৩১ নতুন কেস সামনে এসেছে ৷ মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১২,১৪৭ ৷ স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে জানানো হয়েছে এখনও পর্যন্ত মোট ২,২৮,০২,২০০ নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৷ মহারাষ্ট্রে কোভিড ১৯ থেকে সুস্থ হওয়ার হার ৮১.২১ শতাংশ ৷ মৃতের হার ১.৬৪ শতাংশ ৷

    মুম্বই ডিভিশনে ১৮,৬৭৬ নতুন কেস সামনে এসেছে ৷ ৮৯ জনের সংক্রমণ থেকে মৃত্যু হয়েছে ৷ নাসিকে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৮৩০৯, পুণেতে ৯৯০৯, ঔরাঙ্গাবাদে ৩৩২৯, লাতুরে ৪৭৯২ ৷

    মঙ্গলবার রাত ১২ টা থেকে মহারাষ্ট্র জুড়ে জারি হবে ১৪৪ ধারা। জরুরি পরিষেবা কারফিউয়ের আওতায় পড়বে না। কোভিডের ওষুধ ও অক্সিজেনের জোগান প্রয়োজনের তুলনায় কম বলে জানিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীকে সমস্যা সমাধানের আর্জি জানিয়েছেন উদ্ধব। তেমন হলে ওষুধ, অক্সিজেন আনতে বিমান বাহিনীর সাহায্য চেয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী। রাত ৮ থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত মহারাষ্ট্র জুড়ে ১৪৪ ধারা  জারি করা হয়েছে ৷ উদ্বব ঠাকরে জানিয়েছেন মহারাষ্ট্রে করোনায় মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ৷ রাজ্যের পরিস্থিতি বেশ আশঙ্কাজনক ৷ অক্সিজেনের কমতি রয়েছে ৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য টিকাকরণ প্রক্রিয়া আরও জোরকদমে বাড়াতে হবে ৷ যে ভাবে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে তা অত্যান্ত চিন্তাজনক ৷ এখন কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার পরিস্থিতি এসে গিয়েছে ৷ লকডাউন না করা হলেও বেশ কিছু নিষেধাজ্ঞা জারি কবে ৷

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published:

    লেটেস্ট খবর