ভারী তুষারপাতে ভারত-চীন সীমান্তে আটকে ৪৪৭ পর্যটক! অসুস্থ ২৬ জন! উদ্ধারে সেনা জওয়ানরা

ভারী তুষারপাতে ভারত-চীন সীমান্তে আটকে ৪৪৭ পর্যটক! অসুস্থ ২৬ জন! উদ্ধারে সেনা জওয়ানরা
উদ্ধারের পর না থুলা সীমান্তের ১৭ মাইল সেনা ছাউনিতে রাখা হয়েছে পর্যটকদের। সেখানে পর্যটকদের খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পর্যটকদের নামিয়ে আনা হবে গ্যাংটকে।

উদ্ধারের পর না থুলা সীমান্তের ১৭ মাইল সেনা ছাউনিতে রাখা হয়েছে পর্যটকদের। সেখানে পর্যটকদের খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পর্যটকদের নামিয়ে আনা হবে গ্যাংটকে।

  • Share this:

Partha Sarkar

#গ্যাংটক: ভারী তুষারপাতের জের। বেড়াতে গিয়ে বিপাকে পর্যটকেরা। তুষারপাতের সম্ভাবনার খবর আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাসে ছিলই। কিন্তু আচমকা ভারী তুষারপাতে বন্ধ হয়ে যাবে যান চলাচল, এমনটা টের পায়নি স্থানীয় গাড়ি চালকেরাও। রাস্তা ঢেকে যায় কয়েক মিটার পুরু সাদা বরফের চাদরে। যে দিকে দু'চোখ যায়, শুধুই সাদা আর সাদা। অঝরে ঝরছে তুষার! মনোরম দৃশ্যের সাক্ষী থাকতে গিয়ে উলটে বিপাকে পড়ে ভিন রাজ্যের পর্যটকেরা। ভারত-চীন সীমান্ত না থুলা থেকে আটকে পড়া পর্যটকদের উদ্ধার করা হয়। গতকাল বিকেলের দিকে ৪৪৭ জন পর্যটকদের উদ্ধার করে ভারতীয় সেনাবাহিনী। তুষারপাতের জেরে সীমান্তে বেড়াতে গিয়ে আটকে পড়ে পর্যটকবোঝাই ১৫৫টি গাড়ি।

গতকাল গ্যাংটক থেকে নাথুলা সীমান্তে বেড়াতে গিয়েছিলেন পর্যটকেরা। ফেরার পথেই এমন ঘটনা। এ রাজ্যের পর্যটকেরা তো ছিলেনই, সঙ্গে ছিলেন ভিন রাজ্যের ভ্রমনপিপাসুরাও। করোনা এবং লকডাউনের জেরে ঘরবন্দী পর্যটকেরা নিউ নর্মালে বেড়ানোর সুযোগ হাতছাড়া করতে নারাজ। ক্রমেই ভিড় বাড়ছে পর্যটকদের। কিন্তু ভারী তুষারপাতে রাস্তা বন্ধ হয়ে পড়বে এমনটা বুঝতে পারেননি। গোটা রাস্তা প্রায় ১৫ কিলোমিটার পথ ঢাকা পড়ে যায় সাদা বরফে! খবর পেয়ে উদ্ধারকার্যে হাত লাগান সেনা জওয়ানেরা। এক এক করে পর্যটকদের উদ্ধার করেন সেনা জওয়ানেরা। তাদের মধ্যে ২৬ জন পর্যটককে সেনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাপমাত্রা মাইনাসের নীচে থাকায় অনেকেই শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভুগছিলেন। মূহূর্তেই তাঁদের সেনা হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে চিকিৎসা পরিষেবা শুরু করা হয়।


সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে, অনেকেই চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন। গুরুতর অসুস্থ অবশ্য কেউই হয়নি। সেনাবাহিনী সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, উদ্ধারের পর না থুলা সীমান্তের ১৭ মাইল সেনা ছাউনিতে রাখা হয়েছে পর্যটকদের। সেখানে পর্যটকদের খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পর্যটকদের নামিয়ে আনা হবে গ্যাংটকে। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছেন সেনা কর্তারা। এর আগেও ভারত-চীন সীমান্তে বেড়াতে গিয়ে তুষারপাতের জেরে আটকে পড়ে পর্যটকেরা। বরাবরই উদ্ধার কর্তা হিসেবে পাশে দাঁড়িয়েছেন সেনা জওয়ানেরা। ঝুঁকি নিয়ে তৎপরতার সঙ্গে উদ্ধার করে পর্যটকেরা।

Published by:Simli Raha
First published: