হায়দরাবাদের পশু চিকিৎসক ধর্ষণ কাণ্ডে ৪ অভিযুক্তের ১৪ দিনের জেল হেফাজত

হায়দরাবাদের পশু চিকিৎসক ধর্ষণ কাণ্ডে ৪ অভিযুক্তের ১৪ দিনের জেল হেফাজত
Illustration by Mir Suhail

তরুণী চিকিৎসককে গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে মারায় অভিযুক্ত ৪ যুবক। ধৃতদের ১৪ দিনের জেল হেফাজত।

  • Share this:

#হায়দরাবাদ: দিল্লির নির্ভয়ার স্মৃতি ফিরল হায়দরাবাদে। তরুণী চিকিৎসককে গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে মারায় অভিযুক্ত ৪ যুবকে ১৪ দিনের জেল হেফাজত। ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ ফরেনসিকের। নির্যাতিতার বাড়িতে মহিলা কমিশন। ঘটনার প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিক্ষোভ। বিক্ষোভে সামিল এরাজ্যেও।

ক্লিনিক থেকে বাড়ি ফেরার পথে স্কুটি খারাপ হয়ে যায়। টোলপ্লাজার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন পশুচিকিৎসক তরুণী। পাশের দোকানে সাহায্য চাইতেও যান । পরে সেখান থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে মিলেছে তরুণীর অর্ধদগ্ধ দেহ। ধর্ষণ করে খুনের পর তরুণীর দেহ পুড়িয়ে ফেলে অভিযুক্তরা।

এক প্রত্যক্ষদর্শী দাবি, তরুণীর সঙ্গে দুজন যুবক এসে স্কুটিটি নিয়ে যায়। তরুণীও তাদের সঙ্গেই ছিলেন। সম্ভবত তাঁরা স্কুটি সারিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। স্কুটি সারাতে পাশের একটি দোকানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলেও বোনকে জানান ওই তরুণী। তারপরেই তাঁর মোবাইল বন্ধ হয়ে যায়।

তন্দুপল্লী টোলপ্লাজা থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে শাদনগরে তরুণীর অর্ধদগ্ধ মৃতদেহ মেলে। ঘটনায় অভিযুক্ত ২ ট্রাকচালক সহ ৪ জনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি পুলিশের।

খোদ সাইবারবাদ টোলপ্লাজার কাছে এই নৃশংস ঘটনা। যা প্রকাশ্যে আসতেই চাপে পড়ে কেসিআর প্রশাসন। মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন, ওই তরুণী নিজের বোনের পরিবর্তে ১০০ নম্বরে ফোন করলে এই ঘটনা এড়ানো যেত।

মেহবুবনগরের ফার্স্ট ট্রাক কোর্টে এই মামলা স্থানান্তরের জন্য আবেদন করছে পুলিশ। পুলিশ কমিশনারের আশ্বাস, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যাবতীয় তথ্য-প্রমাণ হাতে এসেছে। এমন ঘটনা রুখতে সন্ধের পর পেট্রোলিং ভ্যান নামিয়ে টহলদারি চলবে বলে ঘোষণা সাইবারাবাদ পুলিশের।

First published: 07:40:34 PM Nov 30, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर