‘‘বৃদ্ধার সেবা করতে করতে দেশে থাকা স্বামীর সঙ্গে ফোন বলছিলেন কথা’’...তারপর সৌম্যার যা হল

Photo of Soumya Santosh, a Keralite woman, who was working in Israel and killed allegedly in a Palestinian rocket strike on Tuesday. (Image: Twitter)

সাত বছর ধরে কর্মসূত্রে ইজরায়েলে আছেন তিনি৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বছর ৩১ সৌম্যা- কেরলের এই মহিলা আতর্কিতেই মারা গেলেন৷ ইজরায়েলে দীর্ঘ সাত বছর ধরে কাজ করছিলেন৷ এক বৃদ্ধা -র সেবা করার সময় হঠাৎই সেই বাড়িতে রকেট হানা হয় আর তাতে মৃত্যু হয় তাঁর৷

    সন্ধ্যাবেলায় তিনি তাঁর স্বামী- যিনি কেরলে থাকেন তাঁর সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলছিলেন৷ সেই সময়েই এই ভয়ানক ঘটনা ঘটে যায় ৷ বাড়িতে রকেট হামলা হয় আর তাতেই সৌম্যা মারা যান৷

    সৌম্যা -র দেওর জানিয়েছেন, ‘‘আমার দাদা ভিডিও কলে কথা বলছিলেন, তখন একটা ভয়ানক শব্দ শোনা যায়, ফোনটা কেটে যায়, এরপর আমরা সেখানের মালায়ালি গোষ্ঠীর সঙ্গে যোগাযোগ করি, তখনই খবরটা পাই৷ ’’ ইদ্দুকি জেলার কেরিথুউদের বাসিন্দা সৌম্যা৷ দীর্ঘ ৭ বছর কর্মসূত্রে তিনি ইজরায়েলে ছিলেন৷ যদিও এখনও সরকারি ভাবে তাঁর মৃত্যুর খবর জানানো হয়নি৷

    বিদেশমন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী ভি মুরলীধরণ মৃতের পরিবারের প্রতি শোক প্রকাশ করেছেন৷ তিনি পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছেন৷

    নব নির্বাচিত ন্যাশানালিস্ট কংগ্রেসের বিধায়কও এই ঘটনার নিন্দা করেছেন৷ তিনি জানিয়েছেন প্রচুর কেরালিয়ান ইজরায়েলে কাজ করেন তাঁরা প্রতিনিয়ত ভয়ে রয়েছেন৷

    এদিকে ইজরায়েল (Israel)  আর হমাসের (Hamas)  মধ্যে তৈরি হওয়া অশান্তি এবার হিংসাত্মক হয়ে উঠেছে৷ রাতারাতি দু‘পক্ষের মধ্যে হিংসার ঘটনা মৃতের সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে৷ তাজা আপডেট অনুযায়ি প্রায় ১০০ টি-র কাছাকাছি রকেট দাগা হয়েছে৷ তার জেরে এক ভারতীয়র মৃত্যু হয়েছে৷ এই লড়াইতে এখনও অবধি ৩৫ জন প্যালেস্তানীয় এবং ৩ জন ইজরায়েলি-র মৃত্যু হয়েছে৷

    বিবিসি-র রিপোর্ট অনুয়ায়ি সোমবার রাত থেকে ইজরায়েলের পক্ষ থেকে ৩০০ -র বেশি রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে৷ সেখানে ইজরায়েলের দাবি এর প্রত্যুত্তরে গাজা -র ১৫০-র থেকে বেশি জায়গায় হামলা চালানো হয়েছে৷ সংবাদমাধ্যমের দাবি হামলায় যে ভারতীয় মহিলার মৃত্যু হয়েছে তাঁর নাম সৌম্যা সন্তোষ৷ যিনি সাত বছর ধরে ইজরায়েলের বাসিন্দা৷ খবর অনুযায়ি হামলা চলাকালীন তিনি একটি বাড়িতে এক বৃদ্ধা মহিলার দেখাশোনা করছিলেন৷ তবে এই হামলার ঘটনায় বৃদ্ধা মহিলা বেঁচে গেছেন৷ কিন্তু তাঁর দেখাশোনায় কর্তব্যরত সৌম্যার মৃত্যু হয়ে যায়৷ বৃদ্ধা মহিলা আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন৷

    রিপোর্ট অনুযায়ি ইজরায়েলের বিদেশমন্ত্রকের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে হামাস প্রায় ১৩০ টি রকেট দেগেছে৷ এরই পাশাপাশি জেরুজালেমেও হিংসা ছড়ানো হচ্ছে৷ ইজরায়েল এই হামলা বৃদ্ধির উত্তর দিতে গিয়ে গাজা স্ট্রিপে পাল্টা হামলা চালিয়েছে৷ এই হামলার দরুণ বড় বিল্ডিংগুলিকে নিশানা বানানো হয়৷ হামাস চরমপন্থী বানানো হয়েছে৷ এর দরুণ ৩ আতঙ্কবাদীর মৃত্যু হয়েছে৷

    বিশেষত্ব এই যে ২০১৪ -র পর দু‘পক্ষের মধ্যে এখনও অবধি এটাই সবচেয় ঘাত-প্রতিঘাতে ভরা আক্রমণ৷ গাজা স্ট্রিপ নিয়ে দু‘পক্ষের মধ্যে এই লড়াই আন্তর্জাতিক মহলে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে৷ একাধিক দেশ এই হিংসা থামানোর আবেদন করেছে৷ এদিকে ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেত্যানাহু বলেছেন জেরুজালেমে রকেটে হানা দিয়ে হামাস নিজেদের এক্তিয়ার বহিভূর্ত কাজ করেছে৷ তিনি হামাসের ওপর হামলা আরও বৃদ্ধি করার নির্দেশ দিয়েছে৷ বিবিসির খবর অনুযায়ি এবার সংঘর্ষ তখন শুরু হয় যখন জেরুজালেমের প্যালিস্তানিয় পরিবারদের বার করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়৷ এরপরেই এলাকায় বিক্ষোভকারী ও পুলিশের মধ্যে গণ্ডগোল শুরু হয়৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: