"আগামী দিনে রাজনীতিতে আসতে পারি"! ২৪ ঘণ্টার জন্য মুখ্যমন্ত্রী হয়ে জানালেন সৃষ্টি গোস্বামী

২৪ ঘণ্টার জন্য মুখ্যমন্ত্রী হয়ে গোস্বামী তিনটে মূল বিষয়ের উপর নজর দিয়েছেন- প্রথমত, শিশু ও মেয়েদের সুরক্ষা; দ্বিতীয়ত, যুবকদের মধ্যে মাদকের ব্যবহার পরীক্ষা করা এবং তৃতীয়ত, রাজ্যে পাহাড়ি অভিবাসন বন্ধ করা।

২৪ ঘণ্টার জন্য মুখ্যমন্ত্রী হয়ে গোস্বামী তিনটে মূল বিষয়ের উপর নজর দিয়েছেন- প্রথমত, শিশু ও মেয়েদের সুরক্ষা; দ্বিতীয়ত, যুবকদের মধ্যে মাদকের ব্যবহার পরীক্ষা করা এবং তৃতীয়ত, রাজ্যে পাহাড়ি অভিবাসন বন্ধ করা।

  • Share this:

    #দেরাদুন: সিনেমা নয় বাস্তবেই একদিনের জন্য উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন উনিশ বছরের সৃষ্টি গোস্বামী। গত ২৪ জানুয়ারী তার উপর ছিল রাজ্যের গুরুদায়িত্ব। সে কর্তব্য অবশ্য তিনি খুব নিষ্ঠার সঙ্গেই পালন করেছেন। ২৪ জানুয়ারী প্রতি বছর জাতীয় বালিকা দিবস হিসেবে পালন করা হয়, আর সেই উপলক্ষ্যেই ওই দিন উত্তরাখণ্ডের সরকার দেশে নজির গড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

    ২৪ ঘণ্টার জন্য মুখ্যমন্ত্রী হয়ে গোস্বামী তিনটে মূল বিষয়ের উপর নজর দিয়েছেন- প্রথমত, শিশু ও মেয়েদের সুরক্ষা; দ্বিতীয়ত, যুবকদের মধ্যে মাদকের ব্যবহার পরীক্ষা করা এবং তৃতীয়ত, রাজ্যে পাহাড়ি অভিবাসন বন্ধ করা। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিভেন্দ্র সিং রাওয়াত বলেছেন, গোস্বামীকে এক দিনের জন্য শিশুসভার মুখ্যমন্ত্রী মনোনীত করা এবং জাতীয় বাল্য শিশু দিবসে রাজ্য বিধানসভায় একটি অধিবেশন আয়োজন করা রাজ্যের সকল মেয়েদের জন্য গর্ব ও শ্রদ্ধার বিষয়। এ ছাড়াও রাওয়াত বলেন, "এই ধরনের উদ্যোগ মেয়েদের নিজেদেরকে চিনতে সাহায্য করবে। এ জাতীয় উদ্যোগ তাঁদের সমাজের প্রতি দায়িত্ব পালনে অনুপ্রাণিত করবে। আমাদের মেয়েরা আজ কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজেদের পরিচয় গড়ে তুলছে এবং আমি গোস্বামীকে তাঁর উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য শুভ কামনা করছি"।

    তৃতীয় বর্ষের বিএসসি-র ছাত্রী গোস্বামী সাংবাদিকদের সঙ্গে কথোপকথনে জানিয়েছেন, বিশেষত শিশু ও মেয়েদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা, যুবকদের মধ্যে মাদকের ব্যবহার পরীক্ষা করা এবং রাজ্যে পাহাড়ি অভিবাসন বন্ধ করার বিষয়ে তিনি অনেক গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়েছেন। অনিল কাপুর অভিনীত বলিউড মুভি 'নায়ক' এর সঙ্গে মিল রেখে গোস্বামী বলেছিলেন, "ওটি রিল এবং এটি আসল। আমি এতটাই অভিভূত এবং উত্তেজিত ছিলাম যে এটি বাস্তবের জন্য ঘটছিল। এবং এর জন্য আমাকে অবশ্যই আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিভেন্দ্র সিং রাওয়াতকে ধন্যবাদ জানাতে হবে"।

    রাজনীতিতে ভবিষ্যৎ কী? প্রত্যুতরে গোস্বামী জানিয়েছিলেন, "ভবিষ্যতে যদি কোনও সুযোগ আসে তবে কেন নয়! আমি রাজনীতিতে যোগ দিতে পারি"। ২০১৮ সাল থেকে তিনি রাজ্যের শিশু বিধানসভার মুখ্যপদে রয়েছেন। গোস্বামী বলেন, মেয়েদের কলেজে যাতায়াত করার সময় তিনি সুরক্ষার বিষয়টিও উত্থাপন করেছিলেন। তিনি বলেছেন, "আমি ডিজিপিকে জিজ্ঞাসা করেছি যে মেয়েরা যখন কলেজে যায় এবং বাড়ি ফিরে আসে তখন তাঁরা কতটা সুরক্ষিত বোধ করতে পারে।"

    প্রবীণ গোস্বামী, তার বাবা বলেছিলেন যে তিনি খুব গর্বিত যে প্রথমবারের মতো কোনও মেয়েকে কোনও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার মতো সম্মান দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেছেন, "এটি কেবল আমার মেয়েকেই নয় বরং রাজ্যের অন্যান্য মেয়েদেরও আশার আলো দেখাবে। তারা যদি কঠোর পরিশ্রম করে তবে কোনও কিছুই তাদের বাধা দিতে পারে না"।

    Published by:Somosree Das
    First published: