গুরুগ্রামে ছাত্র হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ২ জন স্কুল আধিকারিক

গুরুগ্রামে ছাত্র হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ২ জন স্কুল আধিকারিক
Guardians Protest Outside Ryan International School In Gurugram

সোমবার রায়ান ইন্টারন্যাশনাল স্কুল ম্যানেজমেন্টের দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷

  • Share this:

    #গুরুগ্রাম: ছাত্র খুনের ঘটনার প্রতিবাদে রবিবারও উত্তপ্ত ছিল গুরুগ্রামের রায়ান ইন্টারন্যাশনাল স্কুল চত্বর। অভিভাবকদের ওপর লাঠিচার্জ করে পুলিশ। আক্রান্ত সংবাদমাধ্যমও। অন্য কাউকে বাঁচাতেই বলির পাঁঠা করা হচ্ছে বাসের খালাসিকে। দাবি নিহত প্রদ্যুম্নের বাবার।

    ধরা পড়েছে অভিযুক্ত। তারপরও ক্ষোভ কমেনি অভিভাবকদের। সিবিআই তদন্তের দাবি তোলেন বিক্ষোভকারীরা। স্কুলের পাশে একটি মদের দোকানে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বিক্ষোভকারীদের উপর লাঠি চালাতে শুরু করে পুলিশ।

    পুলিশের লাঠিতে জখম হন বেশ কয়েকজন। বাদ জাননি সংবাদিকরাও। ভেঙে ফেলা হয় ক্যামেরা।


    ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে স্কুলবাসের খালাসি অশোক কুমারকে। খুনের কথা সে স্বীকার করেছে বলেও দাবি পুলিশের। ঘটনার জেরে সাসপেন্ড হয়েছেন প্রিন্সিপাল নীরজ বাত্রা। কিন্তু নিহত শিশুর পরিবারের অভিযোগ, বিশেষ কাউকে বাঁচাতেই তাঁদের ফাঁসানো হচ্ছে।

    ছাত্র খুনের ঘটনায় আরও কেউ জড়িত থাকলে, তাঁদের বিরুদ্ধেও যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন হরিয়ানার শিক্ষামন্ত্রী।

    তদন্তের বিষয়ে রাজ্য আশ্বাস দিলেও, অভিভাবকদের ওপর লাঠিচার্জের ঘটনার নিন্দা করেছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল।

    সোমবার রায়ান ইন্টারন্যাশনাল স্কুল ম্যানেজমেন্টের দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ এই নিয়ে দিল্লি ছাত্র খুনের ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে মোট তিনজনকে ৷ পাশাপাশি অভিভাবকদের উপরে লাঠিচার্জ করার জন্য সদর থানার SHO অরুণকেও সাসপেন্ড করা হয়েছে ৷

    First published:

    লেটেস্ট খবর