‘হুয়া তো হুয়া’ মন্তব্যে বিপাকে কংগ্রেস, চাপে পড়ে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হলেন স্যাম পিত্রোদা

‘হুয়া তো হুয়া’ মন্তব্যে বিপাকে কংগ্রেস, চাপে পড়ে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হলেন স্যাম পিত্রোদা
  • Share this:

#নয়াদিল্লি: চুরাশির শিখ হিংসা নিয়ে স্যাম পিত্রোদার মন্তব্যে বিপাকে কংগ্রেস। পিত্রোদার মন্তব্যকে অস্ত্র করে হরিয়ানার সভায় কংগ্রেসকে তোপ দাগেন প্রধানমন্ত্রী। ফেসবুকে পিত্রোদাকে ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন খোদ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি। তাঁর মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা হয়েছে দাবি করে, ক্ষমা চেয়েছেন পিত্রোদা।

‘হুয়া তো হুয়া।’ ভোটের মাঝে এখন এই তিনটি শব্দই যেন নরেন্দ্র মোদির ব্রহ্মাস্ত্র হয়ে উঠেছে। নির্দিষ্ট করে বললে, প্রধানমন্ত্রীর হাতে ব্রহ্মাস্ত্র তুলে দিয়েছে খোদ কংগ্রেস।

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধির পক্ষে সওয়াল করতে গিয়ে, চুরাশির শিখ হিংসা নিয়ে এমন মন্তব্য করে বসেন কংগ্রেসের আন্তর্জাতিক শাখার প্রধান স্যাম পিত্রোদা। ভরা ভোটের বাজারে তাঁর 'হুয়া তো হুয়া' মন্তব্য কার্যত লুফে নেন নরেন্দ্র মোদি। শুক্রবার হরিয়ানার রোহতকের সভায় পিত্রোদার মন্তব্যকে হাতিয়ার করেই কংগ্রেসকে তোপ দাগেন প্রধানমন্ত্রী।

গান্ধি-পরিবার ঘনিষ্ঠ এই নেতার মন্তব্যে সমালোচনার ঝড় উঠছে কংগ্রেসের মধ্যেই। বিতর্কের মাঝে এদিন বিবৃতি দিয়ে কংগ্রেসের দাবি, পিত্রোদার মন্তব্য দলের মতামত নয়। চাপে পড়ে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন পিত্রোদাও।

পিত্রোদা ক্ষমা চাইলেও, বিতর্ক যে এত তাড়াতাড়ি দাঁড়ি টানতে দেবে না গেরুয়া শিবির, সে বিষয়ে নিশ্চিত রাজনৈতিক মহল।

First published: 12:32:50 PM May 11, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com