বিহারে এনসেফেলাইটিসে মৃত্যুমিছিল, প্রতিদিনই বাড়ছে শিশুমৃত্যুর সংখ্যা

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jun 18, 2019 05:51 PM IST
বিহারে এনসেফেলাইটিসে মৃত্যুমিছিল, প্রতিদিনই বাড়ছে শিশুমৃত্যুর সংখ্যা
Children showing symptoms of Acute Encephalitis Syndrome (AES) undergoing treatment at Sri Krishna Medical College and Hospital (SKMCH), in Muzaffarpur. (Image: PTI)
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jun 18, 2019 05:51 PM IST

#বিহার: বিহারে এনসেফেলাইটিসের প্রকোপ, অব্যাহত মৃত্যু মিছিল। ক্রমেই বেড়ে চলেছে মৃতের সংখ্যা। গত ১৭ দিনে অ্যাকিউট এনসেফেলাইটিস সিনড্রোমে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছে ১৩০ জন শিশু। গতকাল, মঙ্গলবার পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ছিল ১২৫। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রায় ৩০০ শিশু। মুজফফরপুরে এনসেফেলাইটিসে মৃত শিশুর সংখ্যা ১০১ , হাজিপুরে মৃত ১১ জন শিশু, সমস্তিপুরে মৃত্যু ৫ শিশুর, পটনা, বেগুসরাই, নবাদাতে মৃত্যু ৩ শিশুর।

স্বাস্থ্য দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, শ্রী কৃষ্ণ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ৮৩জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। কেজরিওয়াল হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে ১৭জন শিশুর। এদের প্রত্যেকেরই বয়স ১০ বছরের কম । প্রাথমিকভাবে প্রচণ্ড জ্বর, খিঁচুনি ও মাথা ব্যাথার মতো উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় শিশুদের। রাজ্য সরকারের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে হাইপোগ্লাইসেমিয়া বা নিম্ন মাত্রার ব্লাড সুগারের জন্যই এই রোগের সূত্রপাত। কিন্তু এই বক্তব্য মানতে নারাজ চিকিৎসক মহল ।তাঁদের মতে নিজেদের গাফিলতি ঢাকতেই এহেন বিবৃতি দিয়েছে রাজ্য সরকার ।

এনসেফেলাইটিসের পাশাপাশি তীব্র তাপপ্রবাহেও বিহারে মৃত্যুমিছিল। এখনও পর্যন্ত গরমের দাপটে প্রায় ১৮৪ জন প্রাণ হারিয়েছেন, অসুস্থ শতাধিক। হাসপাতালে ভর্তি বহু মানুষ। এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে বাঁচাতে সোমবার থেকে ১৪৪ ধারা জারি করেছে গয়া প্রশাসন । ঔরঙ্গাবাদ, গয়া, নবাদায় মৃতের সংখ্যা সর্বাধিক। গতকাল, সোমবার পর্যন্ত ঔরঙ্গাবাদ মৃত্যু ৩৪ জনের, গয়ায় মৃত ৩১ জন, নবাদায় প্রাণ হারিয়েছেন ১২ জন, লক্ষ্মীসরাইয়ে ১জন, শেখপুরায় ১জন, বেগুসরাইয়ে ৩ জন। এছাড়া নালন্দা, সমস্তিপুর, মতিহারিতেও তাপপ্রবাহের দাপটে অসুস্থ হয়ে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

First published: 05:51:33 PM Jun 18, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर