স্কুলের হস্টেলে উলঙ্গ করে ঠান্ডা জলে চুবিয়ে মার, কমোডের জল খাওয়ানো ! নারকীয় অত্যাচারে মৃত ছাত্র

স্কুলের হস্টেলে উলঙ্গ করে ঠান্ডা জলে চুবিয়ে মার, কমোডের জল খাওয়ানো ! নারকীয় অত্যাচারে মৃত ছাত্র
  • Share this:

#দেরাদুন: স্কুল হস্টেলে নারকীয় অত্যাচার, প্রাণ দিতে হল ১২ বছরের এক ছাত্রকে। দেরাদুনের রানীপোখারি জেলায় একটি স্কুলের হোস্টেলে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। গোটা বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে ঘটনার তিন সপ্তাহ পর।

১০ মার্চ-এর ঘটনা। জানা গিয়েছে, প্রথমে ১২ বছরের ওই ছাত্রটির হাত, পা একটি পাইপের সঙ্গে বাঁধা হয়। তারপর চলতে থাকে ব্যাট ও উইকেট দিয়ে দেদার মারধর। এরপর অভিযুক্তরা তাঁকে উলঙ্গ করে ঠাণ্ডা জলের মধ্যে চুবিয়ে রাখে। ছাত্রটিকে চিপস ও বিস্কুট খেতে দেওয়া হয়। এমনকী কমোডের জল এনেও ছাত্রটিকে খাওয়ানো হয়। ছাত্রটি আপ্রাণ '‌বাঁচাও বাঁচাও'‌ চিত্‍কার করলেও সাহায্যের জন্য কোনও ছাত্র বা শিক্ষক এগিয়ে আসেনি।

জানা গিয়েছে, হোস্টেলটিতে প্রায় ২০০ ছাত্র থাকে। এই ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পরেই নাবালক ছাত্রটি মারা যায়। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর পুলিশ তদন্তে নামে। গ্রেফতার করা হয়েছে দুই অভিযুক্ত ছাত্র শুভঙ্কর (‌১৯)‌ ও লক্ষ্মণকে (‌১৯)‌। পাশাপাশি প্রেফতার করা হয় শারীরশিক্ষার শিক্ষক অশোক, হস্টেলের ওয়ার্ডেন অজয় ও স্কুল আধিকারিক প্রবীণ মাসিকে। ঘটনার দিন তিনজনই হস্টেলে উপস্থিত ছিলেন।

২২ মার্চ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পরেই অভিযুক্তদের গ্রেগতার করা হয়েছে। এক অভিযুক্ত স্বীকার করেছে, '‌রাতের খাবার খাওয়ার পর আমরা ছাদে চলে যাই। সেখানেই ছাত্রটির উপর অত্যাচার চালানো হয়।'‌

First published: April 5, 2019, 1:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर