মুম্বইয়ে ব্ল্যাক ফাংগাসে আক্রান্ত ১১১জন, পরিস্থিতি মোকাবিলায় নতুন পদক্ষেপ

ব্ল্যাক ফাংগাস অবশ্য সংক্রমক নয় ৷ এই রোগ ধরা পড়লে এর চিকিৎসা করা সম্ভব ৷

ব্ল্যাক ফাংগাস অবশ্য সংক্রমক নয় ৷ এই রোগ ধরা পড়লে এর চিকিৎসা করা সম্ভব ৷

  • Share this:

    #মুম্বই: বৃহন্নুম্বই পৌর কর্পোরেশন (বিএমসি)এর তরফে বুধবার জানানো হয়েছে মুম্বইয়ে ব্ল্যাক ফাংগাসে আক্রান্ত প্রায় ১১১ জন রোগীর চিকিৎসা চলছে বিভিন্ন হাসপাতালে ৷ এই সমস্ত রোগীরা কোভিড ১৯ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পর এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন  ৷ বিএমসির স্ট্যান্ডিং কমিটির সামনে অ্যাডিশনাল মিউনিসিপাল কমিশনার সুরেশ কাকানি জানিয়েছেন, ব্ল্যাক ফাংগাসের ৩৮ জন রোগীর চিকিৎসা চলছে বিওয়াই নায়ার হাসপাতালে, ৩৪ জনের কেইএম হাসপাতালে, ৩২ জনের সিয়ান হাসপাতালে এবং ৭ জনের কুপর হাসপাতালে ৷ এর মধ্যে বেশির ভাগ রোগী মুম্বইয়ের বাইরের বাসিন্দা ৷

    ব্ল্যাক ফাংগাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বিএমসি মেডিকেল এক্সপার্টদের একটি প্যানেল তৈরি করেছে ৷ এই প্যানেল এবার ঠিক করবে সমস্ত হাসপাতালে রোগীদের কীভাবে চিকিৎসা করা হবে ৷ বিএমসি-র সেন্ট্রাল পার্চেস অথোরিটি অ্যান্টিফাংগাল ওষুধ কিনে রাখছে যার মাধ্যমে ব্ল্যাক ফাংগাসের ব্যবহার করা যেতে পারে ৷

    ব্ল্যাক ফাংগাস অবশ্য সংক্রমক নয় ৷ এই রোগ ধরা পড়লে এর চিকিৎসা করা সম্ভব ৷ থানের এক স্বাস্থ্য আধিকারিক জানিয়েছেন ব্ল্যাক ফাংগাসের জন্য ২ জনের মৃত্যু হয়েছে ৷ তবে খবরটি সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন রয়ে গিয়েছে ৷ সরকারি ভাবে এই বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি ৷  চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, ব্ল্যাক ফাংগাসের সমস্যা সেই সমস্ত করোনা রোগীদের মধ্যে বেশি দেখা যাচ্ছে যাদের আগে থেকে ডায়েবিটিস রয়েছে ৷

    ব্ল্যাক ফাংগাস সাধারণত ডায়েবিটিসের রোগীদের বেশি হচ্ছে ৷ চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, এই সংক্রমণ বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন যাঁরা আগে থেকে ওষুধ খাচ্ছেন এবং যাঁদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম ৷ হাওয়ায় উপস্থিত জীবানু নিশ্বাসের সঙ্গে শরীরে ঢুকে ফুসফুসকে সংক্রমিত করছে ৷

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published: