১০০ দিন পার মোদি সরকারের, সাফল্য ও ব্যর্থতার খতিয়ান নিয়ে সরব সরকার ও বিরোধীপক্ষ

১০০ দিন পার মোদি সরকারের, সাফল্য ও ব্যর্থতার খতিয়ান নিয়ে সরব সরকার ও বিরোধীপক্ষ
Photo- Video Grab
  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ১০০ দিনে পা দিল দ্বিতীয় মোদি সরকার। কী হল এই ১০০ দিনে? প্রতিশ্রুতি পূরণের কথা বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী তুলে ধরলেন সংসদের কথা। দাবি করলেন, সংসদে যা কাজ হয়েছে, তা ৬০ বছরে হয়নি। কিন্তু আর্থিক অবস্থা আর চাকরি? সেই প্রসঙ্গ তুললেনই না প্রধানমন্ত্রী।

বিপুল ভোটে জিতে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় ফেরা। ১০০ দিন পূরণ করার পথে কী পেল মানুষ? প্রধানমন্ত্রী দাবি করলেন, এবার তাঁর লক্ষ্য আরও বড়।

১০০ দিন = বিকাশ, বিশ্বাস ও পরিবর্তন যাত্রা, প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত বহু মানুষের জীবনে পরিবর্তন আনবে। ঘুরিয়ে কী উপত্যকায় ৩৭০ ধারা বিলোপের কথা বললেন, নাকি জল সংরক্ষণ, গরিবদের জন্য প্রকল্প নিয়ে এই মন্তব্য? স্পষ্ট হয়নি।

মোদি সরকারের সাফল্য - ব্যর্থতার কথা উঠলে উঠে আসবে একাধিক প্রসঙ্গ - ১০০ দিন -- কাশ্মীরে উঠল ৩৭০ ধারা তিন তালাক আইন জল সংরক্ষণ নীতি পরিকাঠামোয় ১০০ লক্ষ কোটি বাড়ল স্কলারশিপ -- তলানিতে আর্থিক বৃদ্ধি চাকরি থেকে ছাঁটাই আরটিআই সংশোধনী আইন ব্যাঙ্কের সংযুক্তিকরণ কমছে রেটিং

১০০ দিনের সাফল্য গাথায় টুইট করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও

মোদি সরকার মানেই উন্নয়ন, সুরক্ষা ও দারিদ্র দূরীকরণ।

অন্য একটি টুইটে অমিত শাহ দাবি করেন, মোদি সরকার বলেই কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের মতো সাহসী সিদ্ধান্ত নিতে পেরেছে। সরকারের সাফল্য তুলে ধরতে অন্য মন্ত্রীদেরও নামানো হয়।

বিরোধীরা অবশ্য ১০০ দিন নিয়ে কটাক্ষে ভরিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রকে। মোদির স্লোগানকে ব্যঙ্গ করে কংগ্রেসের টুইটারে লেখা হয়৷

এই সরকার পীড়ন, কোলাহল আর অরাজকতার সরকার

টুইটে রাহুল গান্ধি লেখেন,

এই সরকারের নীতি ও নেতৃত্ব দিশাহীন। আর্থিক হাল ফেরাতে পেটোয়া সংবাদমাধ্যমের আশ্বাস যথেষ্ট নয়, কার্যকরী আর্থিক নীতি প্রয়োজন

১০০ দিনে এই আর্থিক সংকটই যে কেন্দ্রের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ, তা নিয়ে একমত রাজনৈতিক মহলও।

আরও দেখুন

First published: September 9, 2019, 1:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर