লেবার পার্টির সিদ্ধান্তের বিরোধিতায় জেরেমি করবিনকে চিঠি, কাশ্মীর নিয়ে সরব ব্রিটেনের ভারতীয় বংশোদ্ভূত সংগঠন

লেবার পার্টির সিদ্ধান্তের বিরোধিতায় জেরেমি করবিনকে চিঠি, কাশ্মীর নিয়ে সরব ব্রিটেনের ভারতীয় বংশোদ্ভূত সংগঠন

লেবার পার্টির প্রস্তাবের বিরোধিতা করে পার্টি প্রধান জেরেমি করবিনকে এক লম্বা চিঠি লিখেছেন ব্রিটিশ ইন্ডিয়ান কমিউনিটি অরগ্যানাইজেশন ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: শুধু জাতীয় রাজনীতি নয়, আন্তর্জাতিক রাজনীতিতেও গভীর প্রভাব ফেলেছে কাশ্মীর ইস্যু ৷ জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে লেবার পার্টির পাশ করা প্রস্তাবে চুড়ান্ত হতাশ ব্রিটেনে বসবাসকারী ভারতীয় বংশোদ্ভূতরা ৷ লেবার পার্টির প্রস্তাবের বিরোধিতা করে পার্টি প্রধান জেরেমি করবিনকে এক লম্বা চিঠি লিখেছেন ব্রিটিশ ইন্ডিয়ান কমিউনিটি অরগ্যানাইজেশন ৷

ভারতীয় বংশোদ্ভূতদের তরফে সোমবার এক বিবৃতি জারি করে বলা হয়, ভারত ও পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের এই প্রস্তাব এরতরফা ও বিভাজন সৃষ্টিকারী ৷’ একইসঙ্গে তাদের সাবধানবাণী, ‘কাশ্মীর নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক সমাধানের দীর্ঘদিনের অবস্থানকে ত্যাগ করে বিরোধী দল যে প্রস্তাব এনেছে, তাতে খোদ ব্রিটেনেই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হতে পারে ৷ আশঙ্কা রয়েছে ৷’ লেবার পার্টির এই প্রস্তাবকে গ্রহণ করতে নারাজ তারা ৷ ব্রিটেনের বিরোধী লেবার পার্টি লিডার জেরেমি করবিন গত ২৫ সেপ্টেম্বর কাশ্মীর নিয়ে একটি প্রস্তাব আনেন ৷ যাতে দাবি তোলা হয়, কাশ্মীরের বিতর্কিত অঞ্চলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার পর্যবেক্ষকদের ঢুকতে দেওয়া হোক, তাতে তারাই সরেজমিন তদন্ত করে সেখানকার অবস্থা বিস্তারিত ভাবে জানাবে ৷ এই প্রস্তাবে দাবি ওঠে উপত্যকা সমস্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা থেকে বিচ্ছিন্ন, সেখানে ব্যাপক হারে মানবাধিকার ভঙ্গের ঘটনা ঘটে চলেছে ৷
এই মতানৈক্য ও উষ্মার কারণেই লেবার পার্টির বিশেষ নৈশভোজ বাতিল করেছিলেন ব্রিটেনে অবস্থানকারী ভারতীয় হাইকমিশনার ৷ উল্লেখ্য, ব্রিটেনে দেড় মিলিয়নেরও বেশি ভারতীয় বংশোদ্ভূতের বসবাস ৷ গত ৫ অগস্ট ভারতে জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্য থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের সঙ্গে সঙ্গে জম্মু, কাশ্মীরকে ভেঙে জম্মু, কাশ্মীর ও লাডাক নামের তিনটি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল তৈরি করা হয় ৷ অশান্তি এড়াতে উপত্যকায় জারি হয় বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা ৷ বন্ধ করে দেওয়া হয় ফোন ও ইন্টারনেট ব্যবস্থা ৷ ৭০ দিন বাদে মঙ্গলবার থেকে উপত্যকায় শুরু হয়ে পোস্টপেড মোবাইল পরিষেবা ৷ একইসঙ্গে ১০ অক্টোবর থেকে উঠে গিয়েছে পর্যটকদের প্রবেশেও নিষেধাজ্ঞা ৷
First published: October 14, 2019, 7:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर