• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • পরিবেশের স্বার্থে!‌ প্লাস্টিক বর্জ্য দিয়ে ১ লক্ষ কিলোমিটার রাস্তা তৈরি করেছে কেন্দ্র

পরিবেশের স্বার্থে!‌ প্লাস্টিক বর্জ্য দিয়ে ১ লক্ষ কিলোমিটার রাস্তা তৈরি করেছে কেন্দ্র

২০১৬ সালে প্রথমবার প্লাস্টিক বর্জ্য দিয়ে রাস্তা তৈরির বিষয়ে ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতীন গড়করি।

২০১৬ সালে প্রথমবার প্লাস্টিক বর্জ্য দিয়ে রাস্তা তৈরির বিষয়ে ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতীন গড়করি।

২০১৬ সালে প্রথমবার প্লাস্টিক বর্জ্য দিয়ে রাস্তা তৈরির বিষয়ে ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতীন গড়করি।

  • Share this:

    #‌নয়াদিল্লি:‌ অনেকদিন আগেই কেন্দ্রীয় সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবহার করে রাস্তা তৈরি করা হবে। তাতে একদিকে পরিবে‌শে প্লাস্টিক বর্জ্যের পরিমাণ যেমন কমবে তেমনই কমবে খরচও। সেই নীতি মেনেই এতদিনে প্রায় এক লক্ষ কিলোমিটার রাস্তা প্লাস্টিক বর্জ্য দিয়ে তৈরি করে ফেলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সম্প্রতি একটি জাতীয় সংবাদমাধ্যম এই খবর প্রকাশ করেছে।

    প্রতি কিলোমিটার রাস্তা তৈরিতে সাধারণত ৯ টন বিটুমিন ও এক টন প্লাস্টিক বর্জ্যের প্রয়োজন পড়ে। মানে প্রতি কিলোমিটারে এক বিটুমিন বেঁচে যায়, যার ফলে সরকারের খাতে প্রায় ৩০ হাজার টাকা বেঁচে যায় বলে দাবি করা হয়েছে। এই ধরনের রাস্তায় সাধারণত ৬–৭ শতাংশ প্লাস্টিক বর্জ্য ও ৯২–৯৪ শতাংশ বিটুমিন ব্যবহার করা হয়।

    ২০১৬ সালে প্রথমবার প্লাস্টিক বর্জ্য দিয়ে রাস্তা তৈরির বিষয়ে ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতীন গড়করি। তারপর থেকে প্লাস্টিক বর্জ্য দিয়ে রাস্তা তৈরি করা শুরু হয়। এরপর থেকে ১১টি রাজ্যে এই প্রযুক্তিতে রাস্তা তৈরি হয়েছে। সরকার মনে করছে আগামী অর্থবর্ষে এই রাস্তা তৈরির পরিমাণ দ্বিগুণ করা সম্ভব হবে।

    ইতিমধ্যে গুরুগ্রামের মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন, অসম, থেকে শুরু করে জম্মু কাশ্মীরের ন্যাশনাল হাইওয়ে তৈরি হয়েছে এই বিশেষ প্রযুক্তিতে। দিল্লি–মেরঠ হাইওয়েও তৈরি হয়েছে প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবহার করে। দিল্লি বিমানবন্দরের সংযোগকারী রাস্তাও তৈরি হয়েছে এই প্রযুক্তিতেই।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: