ঋতব্রতকে বাঁচাতে প্রভাব খাটাচ্ছেন মুকুল রায়, অভিযোগ নম্রতার

ঋতব্রতকে বাঁচাতে প্রভাব খাটাচ্ছেন মুকুল রায়, অভিযোগ নম্রতার

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Oct 17, 2017 07:21 PM IST
ঋতব্রতকে বাঁচাতে প্রভাব খাটাচ্ছেন মুকুল রায়, অভিযোগ নম্রতার
File Photo
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Oct 17, 2017 07:21 PM IST

 #কলকাতা: ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে নতুন মোড়। ঋতব্রতকে বাঁচাতে প্রভাব খাটানোর অভিযোগ উঠল মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের সাসপেন্ডেড সাংসদের ঘনিষ্ঠ এক চিকিৎসকের মাধ্যমে নাকি মিটমাটের প্রস্তাব দেওয়া হয় নম্রতা দত্তকে। যদিও সেই অভিযোগ মানতে নারাজ সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক। তবে নম্রতার সঙ্গে যে তাঁর কথা হয়েছিল, তা মেনে নিয়েছেন তিনি।

ফের বিস্ফোরক অভিযোগ নম্রতা দত্তর। সিপিএমের বহিষ্কৃত সাংসদকে বাঁচাতে প্রভাব খাটানোর অভিযোগ তুললেন মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে। নম্রতার অভিযোগ, ঋতব্রতর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে মিটমাটের প্রস্তাব দেন মুকুল ঘনিষ্ঠ চিকিৎসক।

নম্রতার দাবি, ঋতব্রতকাণ্ডে নম্রতাকে মিটমাট করার প্রস্তাব দেন অর্চনা মজুমদার নামে এক চিকিৎসক ৷ ওই চিকিৎসক মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ বলে অভিযোগ ৷ নম্রতাকে রবিবার মেসেজ করেন অর্চনা ৷ ফোন করলে তাঁকে মিটমাট করার প্রস্তাব দেন তিনি ৷ নম্রতা জানিয়েছেন, ফোনে অর্চনা বলেন, তিনি নিজাম প্যালেসে বসেন ৷

যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত চিকিৎসক। রীতিমতো বিবৃতি দিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেন তিনি।

অর্চনা মজুমদার বলেন, ‘আমি চিকিৎসক, ভারত সরকারের আধিকারিক। পেশাক্ষেত্রে যৌন হয়রানি নিয়ে বিশেষ কমিটির চেয়ারপার্সন। নিজের পরিচয় দিয়েই নম্রতার সঙ্গে কথা বলি। ঋতব্রতকে ব্যক্তিগতভাবে চিনি না। মুকুল রায়কে অন্যায়ভাবে জড়ানো হচ্ছে। টিভিতে দেখে নম্রতাকে এসএমএস করি। মুকুল রায়কে জড়িয়ে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে আমার বিরুদ্ধে। ফোনো অশ্রাব্য ভাষা বলছেন নম্রতা। প্রয়োজনে আমি আইনি ব্যবস্থা নেব ৷’

Loading...

এদিন বালুরঘাটের কবিতীর্থে নম্রতার বাড়িতে গিয়ে কথা বলে সিআইডি। ধর্ষণের অভিযোগে সিআইডির ডাকে এখনও হাজির দেননি ঋতব্রত। রাজ্যসভার সাংসদের বিরুদ্ধে দিল্লির সাউথ অ্যাভেনিউ থানাতেও দায়ের হয়েছে অভিযোগ। বেশ কয়েকদিন ধরে প্রকাশ্যেও আসছেন না ঋতব্রত। নম্রতার নতুন অভিযোগ তার ওপর চাপ আরও বাড়ল।

First published: 07:21:24 PM Oct 17, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर