Home /News /nadia /
Phuchka: নিম, কালোমেঘ, কুলেখাড়া ফুচকা খেয়েছেন? ৫০ রকমের ফুচকা নিয়ে এল 'সুস্বাদু'!

Phuchka: নিম, কালোমেঘ, কুলেখাড়া ফুচকা খেয়েছেন? ৫০ রকমের ফুচকা নিয়ে এল 'সুস্বাদু'!

title=

Phuchka: আধুনিক ফুচকা ক্যাফে, ৫০ রকমের ফুচকা পাওয়া যায় এখানে, দামও সাধ্যের মধ্যে!

  • Share this:

    #কৃষ্ণনগর: ফুচকা একটি জনপ্রিয় খাবার হিসেবে পরিচিত বাঙালির কাছে। বিভিন্ন রাজ্যের নাম ভিন্ন হলেও এর জনপ্রিয়তা রয়েছে প্রায় সব জায়গাতেই। বাংলায় এর নাম ফুচকা কোনও জায়গায় বলে গোলগাপ্পা কোথাও বা পানিপুরি। তবে সব জায়গাতেই এর জনপ্রিয়তা সমান।

    বাংলায় ফুচকার জনপ্রিয়তা আদিকাল থেকেই। এ পর্যন্ত মোটামুটি চার পাঁচ রকমের ফুচকা বাংলার মানুষের কাছে পরিচিত। এক জল ফুচকা, স্পেশাল ফুচকা, দই ফুচকা, চাটনি ফুচকা। তবে বেশিরভাগ জায়গাতেই জল ফুচকাই বেশি পরিচিত। তবে দেখা যাচ্ছে বর্তমান তরুণ প্রজন্ম খাবারের ওপর এক্সপেরিমেন্ট করতে বেশি পছন্দ করছে। সেই কারণে বাঙালির চেনা পরিচিত খাবার গুলিকেও ভিন্ন ভিন্ন স্বাদে রূপান্তরিত করার চেষ্টা চলছে প্রত্যহ।

    আর সেই পন্থাই অবলম্বন করে একটি মর্ডান ফুচকার ক্যাফে বানিয়ে ফেললেন নদিয়ার কৃষ্ণনগরের বাসিন্দা কাজল দাস। গতে বাঁধা টকজলের ফুচকা ছেড়ে তিনি বানিয়ে ফেললেন একটি মর্ডান ফুচকা ক্যাফে। কৃষ্ণনগর ফোয়ারা মোড়ের নিকট তার এই দোকান বর্তমানে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে তরুণ প্রজন্মের কাছে। তার দোকানের গুগল ম্যাপের লিংক নীচে দেওয়া হল।

    sushadu fuchka sushadu fuchka

    তাঁর ক্যাফের নাম দিয়েছেন সুস্বাদু। বর্তমানে ২০ টির ওপরে ফুচকার আইটেম পাওয়া যায় তাঁর কাছে। তবে তিনি জানান প্রায় ৫০ টির ওপরে আইটেম আসতে চলেছে ভবিষ্যতে তার ফুচকার ক্যাফেতে। তাঁর ফুচকার অন্যতম আইটেম গুলির মধ্যে রয়েছে ভেষজ ফুচকা। তিনি জানান যাদের শারীরিক সমস্যা রয়েছে অথচ ফুচকা খেতে চান, তাঁরা ভেষজ ফুচকা খেতে পারেন এখান থেকে। ভেষজ ফুচকা গুলির মধ্যে পাওয়া যায় নিম ফুচকা, কলোমেঘের ফুচকা, কুলেখাড়ার রসের ফুচকা। চারটে ফুচকা প্লেটে সাজিয়ে মাঝখানে কাপে দেওয়া হয় শুদ্ধ কুলে খাড়ার রস। এই ভেষজ ফুচকা খাওয়া স্বাস্থের পক্ষেও খুবই উপকার বলে জানা যায়।

    এছাড়াও তাঁর কাছে রয়েছে একাধিক অন্যতম ফুচকার আইটেম। যেমন ক্রিসপি পটেটো চিলি ফুচকা, পঞ্চরত্ন ফুচকা, সোয়াচিলি ফুচকা, পনির মহারাজা ফুচকা, এছাড়াও সবার প্রিয় টকজলের ফুচকাতো রয়েছেই। শুধুমাত্র দু একটি ফুচকার স্পেশাল আইটেম বাদ দিলে বেশিরভাগ ফুচকার দামই প্রতি প্লেট ১০ টাকা থেকে ৫০ টাকার মধ্যে।

    এছাড়াও তিনি জানান এবছরের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্যে তিনি রেখেছেন একটি স্পেশাল অফার। যেসমস্ত ছাত্রছাত্রীরা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় ভালো নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তাদেরকে দেওয়া হচ্ছে একটি করে সুস্বাদু পতাকা শংসাপত্র, সাথে একটি গণেশের মূর্তি এবং সাথে এক প্লেট রকমারি ফুচকা। যথারীতি তাঁর দোকানে এসে অনেক ছাত্র ছাত্রীই ইতিমধ্যে তাঁদের উপহার নিয়ে ফুচকা খেয়ে গিয়েছে। সুতরাং বলা যেতে পারে গতে বাঁধা ফুচকা ছেড়ে আধুনিক রকমারি ফুচকাতে মজেছেন আপামর কৃষ্ণনগরবাসী।

    Mainak Debnath

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Krishnanagar, Nadia, Nadia news

    পরবর্তী খবর