Home /News /nadia /
Nadia News|| ৬৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে দুঃস্থদের একবেলা ভাত খাওয়ান পোস্টমাস্টার

Nadia News|| ৬৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে দুঃস্থদের একবেলা ভাত খাওয়ান পোস্টমাস্টার

title=

Latest Bangla News: প্রতিদিন সকাল দশটার সময় নবদ্বীপ স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় পেট ভরে খাওয়ানো হয় শতাধিক দুঃস্থ মানুষদের।

  • Share this:

    #নবদ্বীপ: করোনা মহামারীর ফলে দেশে ঘোষণা করা হয়েছিল লকডাউন। এই লকডাউন বেশিরভাগ মানুষেরই দৈনন্দিন জীবনে প্রভাব ফেলেছে। বিশেষত রাস্তার ভবঘুরেদের। যাদের সারাদিন ঘুরে ঘুরে ভিক্ষে করে দু পয়সা জোগাড় করে কোনও রকমে দিন চলত লকডাউনের সময় তারা পড়েছিলেন মহা বিপদে। তাদের জীবনযাত্রার ছবি উঠে এসেছিল সোশ্যাল মিডিয়াতেও। সেই সমস্ত লোকের দুর্দশা দেখে এগিয়ে এসেছেন অনেকেই।

    ঠিক তেমনই নদিয়ার কৃষ্ণনগরের বাসিন্দা পেশায় পোস্টমাস্টার রাজু পাত্র এগিয়ে এসেছেন সেই সমস্ত দুর্দশাগ্রস্থ মানুষের পাশে দাঁড়াতে। লকডাউন থেকেই গরিব এবং ভবঘুরে মানুষদের প্রতিদিন এক বেলা ভরপেট খাওয়ানোর উদ্যোগ নেন তিনি। নবদ্বীপ স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় অনেক ভবঘুরে এবং ভিক্ষুক রয়েছে। যাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই টুকু পর্যন্ত নেই। রাত্রে বেলা আশ্রয় নেন স্টেশনে বা এলাকারই কোনও জায়গায়।সেই সময় থেকেই এখনও তিনি তাঁর এই মহান উদ্যোগ চালিয়ে যাচ্ছেন ক্রমাগত। প্রায় ৬৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে নবদ্বীপ এলাকার প্রায় শতাধিক মানসিক ভারসাম্যহীন শারীরিক প্রতিবন্ধী এবং ভবঘুরেদের একবেলা করে খাবারের জোগান দেন তিনি। তার এই মহান কাজে পাশে দাঁড়িয়েছেন নবদ্বীপ দেয়ারাপাড়া এলাকার বেশ কয়েকজন স্থানীয় যুবক।

    জানা যায়, ভোর পাঁচটার সময় প্রতিদিন চাপানো হয় রান্না। করা হয় ভাত-তরকারি কিংবা কখনও আমিষের পদ। এরপর সেই রান্না করা খাবার প্রতিদিন ভ্যানে করে নিয়ে যাওয়া হয় নবদ্বীপ স্টেশন সংলগ্ন এলাকায়। সেখানে তাদের জন্য অপেক্ষা করে থাকেন অসংখ্য ভবঘুরে মানুষ। লাইন দিয়ে তারা দাঁড়ান থালা নিয়ে। এরপর প্রত্যেককে গরম ভাত, তরকারি পেট ভরে খাওয়ানো হয়। শুধু তাই নয় বেশ কিছু ব্যক্তিরা আছে যারা শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী। এরা কেউ থাকেন নবদ্বীপ স্টেশনে কেউবা থাকেন নবদ্বীপ সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকায়, তাদেরকেও খাবার রীতিমতো গাড়িতে করে পৌঁছে দিয়ে আসেন প্রতিদিন।

    তাদের এই কর্মকাণ্ড সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হতেই এগিয়ে এসেছেন জেলার বিভিন্ন প্রান্তের মানুষেরা। কারোর জন্মদিনে কারোর বিবাহ বার্ষিকে, কেউবা আত্মীয়র মৃত্যুবার্ষিকীতে বহু মানুষ তাদের সাথে যুক্ত হয়ে এক বেলা সেই সমস্ত ভবঘুরে মানুষদের একবেলা খাওয়ানোর দায়িত্ব নিয়ে থাকেন। এই ভাবেই চলে আসছে টানা ৬৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে।তাদের এই মহান কর্মকাণ্ডের জন্যে খুশি স্থানীয় বাসিন্দা থেকে শুরু করে বিদ্ধজনেরাও। Mainak Debnath

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: Nadia

    পরবর্তী খবর