Football World Cup 2018

কেন্দ্রে অমিত, রাজ্যে দিলীপ ‘ক্যাপ্টেন’, বিজেপিতে এসেই কৌশলী মুকুল

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Nov 06, 2017 05:21 PM IST
কেন্দ্রে অমিত, রাজ্যে দিলীপ ‘ক্যাপ্টেন’, বিজেপিতে এসেই কৌশলী মুকুল
mukul and dilip
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Nov 06, 2017 05:21 PM IST

#কলকাতা: বিজেপিতে নাম লিখিয়েই রাজনৈতিক কৌশল স্পষ্ট করে দিলেন মুকুল রায়। দিলীপ ঘোষে আস্থা দেখিয়েই বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে রাজ্য সভাপতিকেই নিজের ক্যাপ্টেন বলে যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে ঘোষণা করেছেন তিনি। কিছুটা ঢোঁক গিলেই, মুকুলকে রাজ্য রাজনীতির নক্ষত্র বলে পাল্টা স্বীকৃতিও দিয়েছেন দিলীপ।

মুকুল রায়ের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই কিছুটা কটাক্ষের সুর ছিল দলের রাজ্য সভাপতির গলায়। মুকুলের গেরুয়া শিবিরে যোগদানকে কখনও চাটনি কখনও খিচুড়িতে ঘিয়ের সঙ্গে তুলনা করেছেন তিনি ৷

এবার সামনে প্রতিপক্ষ তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু, বিজেপির ভিতরেও যে টানাপোড়েন চলছে তা আগেই আঁচ করেছিলেন ঝানু রাজনীতিবিদ মুকুল রায়। তাই প্রথমদিনেই অবস্থান স্পষ্ট করে ফের বুঝিয়ে দিলেন এবারও তিনি কিং নয়, কিং মেকার হতেই আগ্রহী ৷ সাংবাদিক সম্মেলনে নিমরাজি দিলীপ ঘোষকে পাশে বসিয়ে বললেন-

‘যে অভ্যর্থনা পেয়েছি তাতে আপ্লুত ৷ জাতীয় স্তরে আমার ক্যাপ্টেন অমিত শাহ ৷ বাংলায় ক্যাপ্টেন দিলীপ ঘোষ ৷’

নতুন দল নিয়েও উচ্ছ্বসিত মুকুল ৷ বলেন, ‘বাংলার মানুষ বিকল্পের খোঁজে রয়েছে ৷ বিজেপি সেই বিকল্প ৷ আগামী দিনে বাংলার পরিবর্তন অবশ্যম্ভাবী ৷’

শাসক দলের এককালের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সঙ্গীকে যে সেই দলের বিরুদ্ধেই ব্যবহার করা হবে তা আঁচ করেই প্রথম দিন থেকেই তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব মুকুল রায় ৷ এদিন সাংবাদিকদের সামনে তিনি বলেন,

‘১০ তারিখ রানি রাসমণি রোডে সমাবেশ ৷ রাজনৈতিক বক্তব্য সেদিনের জন্য তোলা রইল ৷ বাংলায় যে পরিবর্তন চেয়েছিলাম তা পাইনি ৷ প্রকৃত পরিবর্তনের জন্য বিজেপি-তে আসুন ৷’

মুকুল রায়কে পাশে নিয়ে যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে সুর বদলে ফেলেন দিলীপ ঘোষও। তিনি বলেন- ‘আমাদের ঘর ছোট, মন বড় ৷ কত বড় নেতাকে জায়গা দিয়েছি ৷ বাংলার রাজনীতিতে ভূমিকম্প হয়েছে ৷ পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতির নক্ষত্র মুকুল রায় ৷ শ্বাস নিতে বিজেপিতে এসেছেন মুকুল ৷ বিজেপি-তৃণমূল সমঝোতার কারিগর মুকুল ৷ বাংলার রাজনীতি নতুন মোড় নিয়েছে ৷ বিজেপিতে মুকুল রায়কে স্বাগত জানাই ৷’

সোমবার, দমদম বিমানবন্দর ও বিজেপির রাজ্য দফতরে সমর্থকদের উচ্ছ্বাস ছিল দেখার মতো। মুকুলের সঙ্গে রাজ্য বিজেপির একাংশের দূরত্ব ঘোচেনি। তার ইঙ্গিত মিলেছে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেই।

অনুষ্ঠানে ছিলেন না রাহুল সিনহা, বাবুল সুপ্রিয়, রূপা গঙ্গোপাধ্যায় ও লকেট চট্টোপাধ্যায়রা। ফলে, মুকুল রায়ের সেকেন্ড ইনিংসেও ঘূর্ণি আঁচ করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। আর সেখানেই প্রশ্ন উঠছে, মুকুলের বিজেপিতে যোগদান আদতে শক্তিবৃদ্ধি ঘটাবে? নাকি বিজেপি নেতৃত্বের অস্বস্তি বাড়াবে?

First published: 05:16:33 PM Nov 06, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर