বর্ষবরণের রাতে শ্লীলতাহানির অভিযোগ

বর্ষবরণের রাতে শ্লীলতাহানির অভিযোগ
  • Share this:

#কলকাতা: ফের বর্ষবরণের রাতে শহরে শ্লীলতাহানি। বর্ষবরণে বেরিয়ে বালিগঞ্জে আক্রান্ত তরুণী, তাঁর বোন ও হবু স্বামী। ঘটনার ছবি ধরা পড়ে সিসিটিভি ফুটেজে। শ্লীলতাহানির ঘটনায় ছ’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

৩১ ডিসেম্বরের রাত। সকলেই ব্যস্ত বর্ষবরণের অনুষ্ঠানে। কোথাও উদ্দাম নাচ, গান, কোথাও আবার বন্ধুবান্ধবদের নিয়ে রাতভর ঘুরে বেড়ান। পদ্মপুকুর রোডে হবু স্বামী, বোনকে নিয়ে গাড়িতে ছিলেন এক তরুণী। অভিযোগ, তখনই কয়েকজন মত্ত যুবক তাঁদের গাড়িতে উঁকিঝুঁকি মারতে থাকে। কটুক্তিও করে। প্রতিবাদ করলে আক্রান্ত হন তরুণীর সঙ্গী। ভাঙচুর করা হয় গাড়ির উইনস্ক্রিন। শ্লীলতাহানিরও শিকার হন ওই তরুণী ও তাঁর বোন। এমনকী বাঁশ দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়।

আরও পড়ুন বর্ষবরণের হুল্লোড়ের পর আতঙ্ক চরমে, গ্যাস চেম্বার হয়ে উঠছে কলকাতা

থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে তাঁদের বাধা দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ। ধাওয়া করা হয় বালিগঞ্জ পর্যন্ত। কোনওমতে পালিয়ে বালিগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন আক্রান্তরা। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে প্রথমে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃত সুমিত পোদ্দার ও রোহিত পাসওয়ানকে জিজ্ঞাসাবাদ করে গ্রেফতার করা হয় ইন্দ্রজিৎ হালদার, সন্তু মণ্ডল, সোমনাথ পাত্র ও বিশ্বনাথ পাত্রকে। ধৃতরা অধিকাংশই পেয়ারাবাগান বস্তির বাসিন্দা। তাদের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টা, মারধর ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের করা হয়। যদিও ধৃতদের আত্মীয়দের দাবি, ঘটনার সময় তারা সকলেই খাওয়া দাওয়া করছিল। এমনকী তাদেরই ওই মহিলা প্রথমে চড় মারেন। ধৃতদের পরিবারের দাবি, মিথ্যে মামলায় তাঁদের ফাসান হচ্ছে।

First published: January 2, 2019, 10:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर