Home /News /malda /
Malda: প্যাসেঞ্জার গাড়ি থেকে উদ্ধার দুই কেজি ব্রাউন সুগার, গ্রেফতার ২ মনিপুরী

Malda: প্যাসেঞ্জার গাড়ি থেকে উদ্ধার দুই কেজি ব্রাউন সুগার, গ্রেফতার ২ মনিপুরী

মনিপুর পুলিশ পরিচয় দিয়ে ব্রাউন সুগার পাচারের চেষ্টা বানচাল করল মালদহ জেলা পুলিশ। শুক্রবার রাতে মালদহের গাজোল টোল প্লাজায় নাকা চেকিং চালিয়ে সন্দেহজনক একটি গাড়ি আটক করে পুলিশ।

  • Share this:

    মালদহ: মনিপুর পুলিশ পরিচয় দিয়ে ব্রাউন সুগার পাচারের চেষ্টা বানচাল করল মালদহ জেলা পুলিশ। শুক্রবার রাতে মালদহের গাজোল টোল প্লাজায় নাকা চেকিং চালিয়ে সন্দেহজনক একটি গাড়ি আটক করে পুলিশ। তল্লাশি চালিয়ে গাড়ির প্যাসেঞ্জার সিটের নিচে গোপন জায়গায় থেকে উদ্ধার করে নয় প্যাকেট ব্রাউন সুগার। পুলিশ গ্রেফতার করে গাড়ি চালক সহ এক যুবককে। উদ্ধার হয়েছে প্রায় ত্রিশ লক্ষ টাকার ব্রাউন সুগার। গোপন সূত্র মারফৎ মালদহ জেলা পুলিশ জানতে পারে মনিপুর থেকে ব্রাউন সুগার নিয়ে আসছে পাচারকারীরা। মালদহের কালিয়াচক বা মুর্শিদাবাদের নিয়ে আসা হচ্ছিল। এমনি খবর ছিল মালদহ জেলা পুলিশের কাছে। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মালদহ জেলা পুলিশ শুক্রবার রাতে মালদহের চারটি জায়গাই নাকা চেকিং এর জন্য পুলিশ মোতায়েন করে। গাজোল, পুরাতন মালদহ, ইংরেজবাজার ও কালিয়াচক থানা এলাকায় ১২ নম্বর জাতীয় সড়কের নাকা চেকিং শুরু করে পুলিশ। তবে গাজোল থানা এলাকায় জাতীয় সড়কের টোল প্লাজায় নাকা চেকিং এ গাড়িটি আটক করে পুলিশ। সন্দেহ জনক গাড়িটিতে তল্লাশি চালায়।তবে প্রথম দফার তল্লাশি অভিযানে কিছুই উদ্ধার হয়নি। পুলিশ গাড়িটিতে চিরুনি তল্লাশি চালায়। গাড়িটির সামনের যাত্রী সিটের নীচে একটি গোপন জায়গায় ব্রাউন সুগার লুকিয়ে রাখা ছিল। পুলিশ সেখান থেকে নয় প্যাকেট ব্রাউন সুগার উদ্ধার করে।

    পুলিশ গাড়ি চালক সহ দুই জনকে গ্রেফতার করে। ধৃতদের বাড়ি মনিপুরে।  পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত একজনের কাছ থেকে পুলিশ মণিপুর পুলিশের পরিচয় পত্র উদ্ধার করেছে। ধৃতের নাম মোহাম্মদ ওয়াকার ইউনিস (২২)। গাড়ি চালক মোহাম্মদ ইসাদ আলী (২২)। বাড়ি মনিপুর। ধৃতদের হেফাজত থেকে উদ্ধার হয়েছে প্রায় ২ কেজি ৬৬ গ্রাম ব্রাউন সুগার।চোরা বাজারে আনুমানিক বাজার মূল্য ত্রিশ লক্ষ টাকা। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে আরো দুই জনের নাম জানতে পারে পুলিশ।

    আরও পড়ুনঃ বিয়ের পরই ফিরে এল প্রেমিক, এরপরই রূপবদল নববধূর! জীবন শেষ স্বামীর

    তাদের মধ্যে একজনকে গ্রেফতার করেছে। ধৃতের নাম আরিফ শেখ (২২)। বাড়ি মুর্শিদাবাদ জেলার সাগরদিঘি থানা এলাকায়। আরো একজনের খোঁজে পুলিশ তল্লাশি শুরু করেছে। মালদহ জেলা পুলিশ প্রদীপ কুমার যাদব বলেন, ব্রাউন সুগার সহ দুইজন মনিপুরের বাসিন্দা গ্রেফতার করা হয়েছে।  মনিপুর থেকে ব্রাউন সুগার গুলি মালদা বা মুর্শিদাবাদের উদ্দেশ্যে নিয়ে আসা হচ্ছিল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে নাকা চেকিং চালিয়ে আমরা ধৃতদের গ্রেফতার করে।

    আরও পড়ুনঃ গোটা দেশে গর্বিত হবে বাংলা, সৌজন্যে মালদহের আম! ব্যাপার কী?

    অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করে মুর্শিদাবাদের আরো এক বাসিন্দা কে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই ঘটনার পেছনে আরও কেউ জড়িত রয়েছে কিনা তার তদন্ত শুরু হয়েছে।শনিবার অভিযুক্ত তিন জনকে মালদা জেলা আদালতে পেশ করে কালিয়াচক থানার পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনের ১৪দিনের পুলিশি হেফাজতের আবেদন জানানো হয়েছে।

    Harashit Singha
    First published:

    Tags: Malda

    পরবর্তী খবর